চুক্তি বাড়তে চলেছে ব্রাইটের, ইস্টবেঙ্গলের টার্গেট রহিম, অনিকেতরাও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দলের প্রত্যেকেই মানছেন তিনি দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার পরে খেলার আমূল বদল ঘটেছে। কোচ রবি ফাউলারও জানিয়েছেন, ‘‘ব্রাইট এনোবাখারে দলের সঙ্গে যোগ দেওয়ার পরে আমার হাতে নানা বিকল্প চলে এসেছে। আমি ভাবতে পারছি আরও কিভাবে ম্যাচে কৌশল সাজানো যায়।’

হ্যামলিনের বাঁশিওয়ালার মতো লাল হলুদ দলেও হাজির হয়েছেন নাইজেরীয় তরুণ স্ট্রাইকার। যিনি এসেই গোল করতে শুরু করে দিয়েছেন। তার চেয়েও বড় কথা, তাঁকে নিয়ে বিপক্ষ দল এত ভাবতে শুরু করে দিয়েছে, তাতে দলের বাকিরা নিজেদের মেলে ধরতে পারছেন আরও সহজেই। মাট্টি স্টেইনম্যানের মতো তারকাও মানছেন ব্রাইট আসায় তাঁদের মানসিকতারও পরিবর্তন ঘটেছে।

আগে দেখা গিয়েছিল, মাঘোমা ও পিলকিনটন থাকলেও দলের গোল পেতে সমস্যা হচ্ছিল। তাঁরা অনেকদিন ধরেও খেললেও ছন্দে আসতে দেরি করেছেন। কিন্তু ব্রাইট এসেই দ্রুত দলের সঙ্গে মানিয়ে নিয়েছেন। প্রমাণ করেছেন তাঁর জাত আলাদা। ব্রাইটের খেলার মধ্যে অনেকেই মাইক ওকোরোর ছায়া দেখছেন। সেই একইরকম গোলের খিদে, সেই একই স্কিলফুল ফুটবলার। তার মধ্যে চোরা গতিতে তিনি বিপক্ষের ডিফেন্ডারদের ঘুম ছুটিয়েছেন।

যিনি এসেই দলের সকলের মন জয় করে নিতে সক্ষম হয়েছেন, তাঁকে নিয়ে বেশি দূর ভাবেননি খোদ ক্লাব কর্তারাই। সেই কারণেই ব্রাইটের সঙ্গে চলতি আইএসএল পর্যন্তই চুক্তি করেছিলেন তাঁরা। কিন্তু তিনি এসে যে খেল দেখানো শুরু করেছেন, তাতে কোচ ফাউলারই কর্তাদের অনুরোধ করেছেন ব্রাইটকে আরও দুইবছরের জন্য দলের সঙ্গে ধরে রাখতে হবে। সেই মতোই পরিকল্পনা নিয়েছেন কর্তারা।

ব্রাইটের এজেন্টের সঙ্গেও এসসি ইস্টবেঙ্গলের কর্তারা কথা বলেছেন। তাঁকে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে ২০২২ সালের মার্চ পর্যন্ত চুক্তি করতে। ব্রাইট কিছু না বললেও মনে করা হচ্ছে তিনিও ক্লাবের প্রস্তাব গ্রহণ করবেন। ইতিমধ্যেই একবার এটিকে-মোহনবাগানও বাজিয়ে দেখেছে ব্রাইটকে, সামনের বারের জন্য। কিন্তু লাল হলুদ কর্তারা ব্রাইটের থেকে কথা আদায় করে নিয়েছেন, তাঁদের সঙ্গে কথা না বলে কোনও সিদ্ধান্ত তিনি নেবেন না।

লাল হলুদের এক কর্তাও জানালেন এদিন, ‘‘ব্রাইটকে আমরা আরও দুইবছর ধরে রাখব। আমরা চাইছি তিনবছরের চুক্তি, কিন্তু ওর এজেন্ট রাজি নয়। দেখা যাক কী হয়!’’ এদিকে তার মধ্যেই ইস্টবেঙ্গল দলে নিতে চাইছে অজয় ছেত্রী, রহিম আলি, অনিকেত যাদবদের। অজয় ইতিমধ্যেই সইও করে ফেলেছেন। বেঙ্গালুরু থেকে তিনি এসেছেন।

দলের ব্রিটিশ কোচ আগেই জানিয়েছিলেন, জানুয়ারিতে নতুন উইন্ডো খুললেই দলকে তিনি ঢেলে সাজাতে চান। সেই মতোই ক্লাবও এই ভারতীয় ফুটবলারদের সঙ্গে কথা বলে নিতে চাইছে। আইএসএলের দ্বিতীয় অর্ধে যে লাল হলুদের অন্য একটি দলকে আমরা মাঠে দেখব, সেটি বলাই যেতে পারে। নতুন উদ্যমে শুরু করতে চাইছে লাল হলুদ ব্রিগেড।

 

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More