বার্ড ফ্লু ভাইরাসের হানা, দু’হাজার মুরগির অর্ডার বাতিলই করে দিলেন ধোনি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পোলট্রি ফার্মে নেমেছিলেন কয়েকদিন আগেই। ভেবেছিলেন এই পোলট্রি ব্যবসার বাজার ধরতে পারলে আখেরে লাভবান হওয়া যাবে। সেই কারণেই কড়কনাথ মুরগি দিয়ে পোল্ট্রি ব্যবসা শুরু করেন ধোনি। এবার অর্ডার দিয়েছিলেন কড়কনাথের সঙ্গে গ্রামাপ্রিয়া প্রজাতির মুরগিরও।

এও বলা হয়, ধোনির মুরগি যাবে সুদূর দুবাইতেও। কিন্তু করোনা কালের মধ্যে বার্ড ফ্লু আতঙ্কও আবারও ধেয়ে আসায় মাহি তাঁর দুই হাজার মুরগির অর্ডারও বাতিল করে দিয়েছেন। তাঁর ফার্ম সূত্রে জানা গিয়েছে, পোলট্রি ব্যবসা হয়তো ভারতের প্রাক্তন নামী অধিনায়ক বন্ধ করছেন না এখনই, কিন্তু সাময়িকভাবে যে অর্ডারগুলি তোলা হয়েছে, সেগুলি বন্ধ করা হয়েছে।

ভারতে তো বটেই, বিশ্বের নানা প্রান্তে বার্ড ফ্লু বা এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জা ছড়িয়ে পড়েছে। সেই কারণেই ধোনির খামারের কাজও সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে।

সাম্বোতে ধোনির মুরগির খামার দেখভালের দায়িত্বে থাকা ডা. বিশ্বরঞ্জন জানিয়েছেন, ‘‘কয়েকদিন আগে দুই হাজার কড়কনাথ এবং গ্রামাপ্রিয়া মুরগির অর্ডার দেওয়া হয়েছিল। যেগুলো পরিবহন ও আমদানির প্রস্তুতিও শেষ পর্যায়ে ছিল। এমনকি ওই মুরগি বিদেশেও যেত।’’

মধ্যপ্রদেশ থেকে কড়কনাথ এবং হায়দরাবাদ থেকে গ্রামাপ্রিয়া মুরগির অর্ডার দেওয়া হয়েছিল ধোনির খামারের জন্য। কিন্তু বার্ড ফ্লু’র সতর্কতায় সব অর্ডার বাতিল করে দিয়েছেন ধোনি।

ধোনির মুরগির খামারটি ৪৩ একর জমির ওপর। কড়কনাথ প্রজাতির মুরগিতে প্রচুর পরিমাণে সুস্বাদু মাংস পাওয়া যায়। ভারতে সবচেয়ে দামি মুরগির ডিমও এই কড়কনাথেরই। ধোনি তাই লাভজনক এই ব্যবসায় নেমেছিলেন কোমড় বেঁধেই। বার্ড ফ্লু আপাতত ধস নামিয়ে দিল ব্যবসায়।

 

 

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More