ভারতের জলপ্রকল্পে অর্থ অনুদান করছেন ইস্টবেঙ্গলের জার্মান মিডফিল্ডার স্টেইনম্যান

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভারতের অনেক ক্রীড়াবিদ যা ভাবতে পারেননি, ঠিক সেটাই ভেবে ব্যতিক্রমী এক নজির দেখালেন এস সি ইস্টবেঙ্গলের জার্মান মিডফিল্ডার মাট্টি স্টেইনম্যান। তিনি এমনিতেই দলে দারুণ জনপ্রিয়, খুব মিশুকে এই ফুটবলারকে কোচ ফাউলার ‘ম্যাটস’ বলে ডাকেন।

তিনি সম্প্রতি ঠিক করেছেন বর্ষার জলকে কাজে লাগিয়ে ভারত যে ‘জলপ্রকল্প’-এর কথা ভেবেছে, তার জন্য তিনি আর্থিকভাবে অনুদান দেবেন। এমনকি তিনি নিজেই একটি ডোমেন খুলেছেন, যেখানে দেখা যাচ্ছে তিনি ভারতের মানুষকে এই কাজে এগিয়ে আসার জন্য আহ্ববান জানাচ্ছেন।

শুধু তাই নয়, স্টেইনম্যানের ডাকে সাড়া দিয়ে বহু লাল হলুদ সমর্থক অনুদান দেবেন বলে জানিয়েছেন। স্টেইনম্যান নিজের এই প্রজেক্টের নাম দিয়েছেন, ‘‘মাট্টি রানস ফর ওয়াটার… আই রান… উই অল সাপোর্ট।’’

আচমকা এমন একটি প্রকল্পের কথা ভেবে তিনি অর্থ দিতে রাজি হলেন কেন? এই প্রশ্নও ঘোরাফেরা করছে। ইস্টবেঙ্গলের এক শীর্ষ কর্তা এদিন জানালেন, মাট্টি এমনই, দারুণ মানুষ, নানা জনহিতকর কাজ করতে ভালবাসে। না হলে চলতি আসরে গোয়ায় নানা কাজে তিনি নিজেকে জড়িয়ে রেখেছেন। স্টেইনম্যান বলেছেন তিনি মাসে মাসে যে বেতন পাবেন ক্লাবের থেকে, তার একটি অংশ তিনি অনুদান হিসেবে দান করবেন এই প্রকল্পে।

জানা গিয়েছে, লাল হলুদের এই বিদেশী তারকার পানীয় জল নিয়ে নিজের দারুণ পছন্দ-অপছন্দের বিষয় রয়েছে। তিনি নিজের দেশেও দেখেছেন, বৃষ্টির জলকে কাজে লাগিয়ে তা পানীয় জলে রূপ দেওয়া যেতে পারে। তিনি এই বিষয়টি নিয়ে ভাল করে ভেবেছেন, এমনকি কয়েকজনের সঙ্গে কথা বলেই এগিয়েছেন।

এও শোনা গিয়েছে, স্টেইনম্যানের সঙ্গে এ ব্যাপারে মারগাওতেই এক এনজিও-র সঙ্গে কথা হয়েছে। তারা ভারত সরকারের জলপ্রকল্পের বিষয়টি নিয়ে তাঁকে বুঝিয়েছেন। সেটি জানার পরেই তিনি উদ্যোগী হয়েছেন অর্থ বিনিয়োগের বিষয়ে।

এমনকি তিনি এই নিয়ে একটি ডোমেন খুলেছেন, যেটি বেশিরভাগ লেখাই রয়েছে নিজের মাতৃভাষা জার্মানিতে। কীভাবে এই প্রকল্পে অর্থ বিনিয়োগ করা যেতে পারে, তাঁর পাশে দাঁড়ানো যেতে পারে, সেটি নিয়ে তিনি বিশদে লিখেছেন তাতে।

স্টেইনম্যানের দলেও দারুণ গ্রহণযোগ্যতা। ইস্টবেঙ্গল শিবিরে দলের মিটিংয়ের সময় স্টেইনম্যানও দারুণ বক্তব্য রাখেন। তিনি একজন ভাল বক্তাও। এমনকি মাঠেও দায়িত্ব নিয়ে খেলেন জার্মানির যুব দলের প্রাক্তন এই তারকা। ২৬ বছর বয়সী দীর্ঘকায় এই বিদেশী ফাউলারের দলের নির্ভরযোগ্য নাম, না বললেও চলে। এমনকি তিনি গোল করে দলকে সুবিধে করে দিতে পারেন, সেটিও দেখা গিয়েছে গোয়া ম্যাচে।

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More