ইস্টবেঙ্গলের বকেয়া বিতর্ক পৌঁছতে পারে ফিফার কোর্টে, ট্রান্সফার উইন্ডো স্থগিতের নির্দেশ ফেডারেশনের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: চলতি আইএসএলের মধ্যেই অনাকাঙ্খিত বিষয়ে ফেঁসে গিয়েছে এস সি ইস্টবেঙ্গল। তারা এবারই বাতিল করেছিলেন সাত ফুটবলারকে, যাঁদের সঙ্গে চুক্তি ছিল ২০২৩ সাল পর্যন্ত। প্রথমে বলা হয়েছিল, তাঁদের সঙ্গে একেবারে সম্পর্কছিন্ন না করে অন্য টুর্নামেন্টের জন্য রেখে দেওয়া হবে। কিংবা সম্মানজনক শর্তে অন্য ক্লাবের হাতে দিয়ে দেওয়া হবে বাতিল ফুটবলারদের। সেটি করেননি ইস্টবেঙ্গলের ইনভেস্টর শ্রী সিমেন্টের কর্তাব্যক্তিরা। তারা সামাদ আলি মল্লিক, পিন্টু মাহাতো, রক্ষিত ডাগর, মহম্মদ ইরশাদ, অভিষেক আম্বেরকরদের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করে দিয়েছেন স্রেফ কথার ভিত্তিতে।

এটি ভারতীয় ফুটবলে পুরনো রোগ। চুক্তি হয় এককথার ভিত্তিতে, আর ন্যর্য পাওনা থেকে বঞ্চিত করা হয় তাঁদের সহজেই। এর মধ্যে শ্রী সিমেন্ট আধিকারিকরা লাল হলুদ কর্তাদের স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, তাঁরা যদি লিখিত চুক্তিতে চূড়ান্তভাবে স্বাক্ষর না করেন, তা হলে ফুটবলারদের বকেয়া দেওয়া হবে না। বহুদিন ধরে দু’জনের মধ্যে সমঝোতা চুক্তিপত্র স্বাক্ষর হয়নি, সেই নিয়েও টালবাহানা চলছে।

ফুটবলারদের মিলিত বকেয়া প্রায় দুই কোটি টাকার মতো। বিনিয়োগকারী সংস্থা কোয়েস থাকাকালীন অনেক ফুটবলারদের সঙ্গে চুক্তি হয়েছিল। বলা হয়, চুক্তির আগে যদি কোনও ফুটবলার পারফরম্যান্স জনিত কারণে বাতিল হয়, তাদের বকেয়া ক্লাব কর্তৃপক্ষই দেবে। এমনই লেখা ছিল শর্তে।

সাত ফুটবলারকে বাতিল করে দেওয়া হয়েছিল কোচ রবি ফাউলারের নির্দেশে। তাঁদের ছাঁটাই করে নয়া ফুটবলার নিয়োগ হয়। কিন্তু ওই সাত ফুটবলারদের একাংশ এআইএফএফ (সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন)-কে চিঠি লিখে জানান, তাদের বকেয়া অর্থ ক্লাব দেয়নি, এই নিয়ে কথাও বলেনি। তারপরই নড়েচড়ে বসে ফেডারেশন কর্তারা।

তাঁরা এর আগে মৌখিক জানালেও, বৃহস্পতিবার চিঠি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন, বকেয়া অর্থ না মেটালে ইস্টবেঙ্গলের আগামী বছর ট্রান্সফার উইন্ডোতে ফুটবলার নিয়োগ নিষিদ্ধ হতে পারে। এমনকি ফুটবলাররা যেভাবে বিষয়টি নিয়ে এগচ্ছেন, তাতে করে তাদের হয়ে দেশের ফুটবলারদের সংগঠন ইস্যুটিকে ফিফা দপ্তরেও পাঠানোর হুমকি দিয়ে রেখেছে।

একেই চলতি আসরে পারফরম্যান্স তলানিতে, তারপর মাঠের বাইরেও নানা চাপে দিশেহারা লাল হলুদ শিবির।

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More