আইপিএলের বাকি ম্যাচ করতে চাইছে ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্লাবগুলি, বোর্ডের ইচ্ছে অবশ্য অস্ট্রেলিয়া

দ্য ওয়াল ব্যুরো: একবার চোখ বুজে ভাবতে থাকুন, এই করোনাকালের মধ্যেও আইপিএল হচ্ছে ইংল্যান্ডের কোনও কাউন্টি মাঠে। ঢেউ খেলানো মাঠে আপনি বার্গার ও সফট ড্রিঙ্কস খেতে খেতে খেলা উপভোগ করছেন।

আবার দেখা গেল কেউ হয়তো বড় ছয় মারলেন, আপনার কোলে এসে পড়ল সেই বল। গাঁটের কড়ি খরচ করতে পারলে ইংল্যান্ডের ছায়াঘন পরিবেশে আইপিএলের ম্যাচ দেখতেই পারেন।

এমনই ভাবনা ভারতীয় বোর্ড কর্তাদের। সবটাই ভাবনার স্তরে রয়েছে। তবে ইংল্যান্ডের চারটি কাউন্টি ক্লাব বিসিসিআই-কে জানিয়েছে তারা বাতিল হওয়া আইপিএলের ম্যাচগুলি করতে চায়।

আইপিএলের বাকি ম্যাচগুলি কোথায় খেলা হবে তা নিয়ে সংশয় সৃষ্টি হলেও ভারতে যে আর এ মরশুমের আইপিএল অনুষ্ঠিত হচ্ছে না তা মোটামুটি নিশ্চিত। এই বিষয়ে ভাবা হয়েছিল আরব আমিরশাহীর কথা, কিন্তু বোর্ডের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট সাংসদ রাজীব শুক্লা জানিয়েছেন, ‘‘সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর ক্ষেত্রে আবহাওয়া একটা বড় সমস্যা। অক্টোবরের আগে ওখানে ভীষণ গরম থাকে, ওটা ক্রিকেটারদের পক্ষে ঠিক হবে না।’’

তিনি আরও বলেছেন, সেদিক থেকে ইংল্যান্ডের আবহাওয়া ক্রিকেটার এবং সম্প্রচার সংস্থা উভয়ের ক্ষেত্রেই সুবিধাজনক হবে। অস্ট্রেলিয়াও বাকি অংশ অনুষ্ঠিত করার জন্য খারাপ নয়। দেশের সরকারের সম্মতি পেলে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া আইপিএলকে স্বাগত জানাতে পেরে খুশিই হবে।’’

তিনি এও জানান, অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ভারতের সময়ের পার্থক্য মাত্র সাড়ে তিন ঘন্টা। সেটি দর্শকদের পক্ষেও খারাপ হবে না কিছুই। ইংল্যান্ড হলে তো ভালই, অস্ট্রেলিয়ার মাঠ হলেও দারুণ হবে।

এদিকে, এমসিসি, সারে, ওয়ারউইকশায়ার এবং ল্যাঙ্কাশায়ার, এই চার কাউন্টি দল নিজেদের মাঠে আইপিএল-এর ম্যাচ আয়োজন করতে রাজি হয়েছে। এদের ঘরের মাঠ হল যথাক্রমে লর্ডস, কিয়া ওভাল, এজবাস্টন এবং ওল্ড ট্র্যাফোর্ড। প্রতিটি কাউন্টির তরফেই ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডকে চিঠি পাঠিয়ে অনুরোধ করা হয়েছে বিসিসিআই-এর সঙ্গে কথা বলার জন্য।

এমনকি এই মাঠগুলিতে ভরা দর্শকদের নিয়ে খেলা করানো যাবে। তাতে বানিজ্যিকভাবেও লাভ হবে বিসিসিআই-র। এই প্রস্তাব পাওয়ার পরে সেটি ভেবে দেখতে চাইছে সৌরভের বোর্ড।

Leave a comment

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More