বিজয় হাজারেতে লজ্জার হার বাংলার, অরুণ লালদের সঙ্গে কথা বলতে পারেন সৌরভ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বঙ্গ ক্রিকেটে নয়া বিতর্ক হাজির। প্রতিবার নতুন করে সেজে ওঠার বার্তা দেওয়া হয়। ঘরোয়া ক্রিকেটে নানা ঢাকঢোল পিটিয়ে খোলা ময়দানে ক্রিকেট শুরুর ঘন্টা বাজানো হয় খোদ সিএবি সভাপতির উপস্থিতিতে। কিন্তু সেই একই গল্প এবারও বর্তমান।

বাংলা ক্রিকেটে এবার ব্যর্থতা দিয়ে শুরু, দুটি টুর্নামেন্টে সফল নন ক্রিকেটাররা। প্রথমে মুস্তাক আলি টি ২০ ক্রিকেটে বিদায়, এবার বিজয় হাজারে ট্রফিতেও বাংলা দল চরম ব্যর্থতার নজির রেখেছে।

বৃহস্পতিবার বিজয় হাজারে ট্রফিতে ফের হতশ্রী হার বাংলার। চণ্ডীগড়ের পর বৃহস্পতিবার তারা হারল সৌরাষ্ট্রের কাছে, ১৪৯ রানে। এই হারের পর বিজয় হাজারে ট্রফিতে বিদায়ঘণ্টা বেজে গেল বাংলার। গ্রুপে পাঁচ ম্যাচের মধ্যে তিনটি খেলে জয় মাত্র একটিতে, দুর্বল সার্ভিসেসের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার সল্টলেকে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের মাঠে টসে জিতে সৌরাষ্ট্রকে প্রথমে ব্যাট করতে পাঠায় বাংলা। নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৯ উইকেটে ৩২৪ রান করে সৌরাষ্ট্র। অর্পিত বাসবদা ৫৯ বলে ৯১, অভি বারোত ৯০ বলে ৮৩, প্রেরক মানকড় ৫৯ বলে ৫৯, চিরাগ জানি ৪০ বলে ৩৩ এবং জয়দেব উনাদকাট ৯ বলে ১৩ রান করেন।

ঈশান পোড়েল ৭১ রানের বিনিময়ে ৩ উইকেট নেন, তবে সব উইকেটই ইনিংসের শেষে! জবাবে ব্যাট করতে নেমে বাংলা ৩৭ ওভারে মাত্র ১৭৫ রানে গুটিয়ে যায়। অভিমন্যু ঈশ্বরন ৬১ বলে ৪৪ রান করেন। কাইফ আহমেদ করেন ৩৭ রান। বাকিদের পারফরম্যান্স হতাশাজনক বললেও কম। জয়দেব উনাদকাট ৪৬ রানে ৩ উইকেট নিয়েছেন।

বিজয় হাজারের প্রথম ম্যাচে সার্ভিসেসকে ৭০ রানে হারিয়েছিল বাংলা। দ্বিতীয় ম্যাচে চণ্ডীগড়ের কাছে ৫ উইকেটে এবং সৌরাষ্ট্রের কাছে এই জঘন্য হার। স্বভাবতই চাপে বাংলা শিবির। গ্রুপ শীর্ষে থাকার সম্ভাবনা তো নেই-ই দ্বিতীয় হওয়ার সম্ভাবনাও ক্ষীণ, কারণ সৌরাষ্ট্র এবং চন্ডীগড় দুটি দলই তিনটি করে ম্যাচ জিতে ফেলেছে। বাংলা বাকি দুটি ম্যাচ যদি জিততে পারে, তিনটি জয় পেয়ে ১২ পয়েন্টে পৌঁছতে পারে, এই পর্যন্তই। পরের ম্যাচ জম্মু ও কাশ্মীরের বিরুদ্ধে ২৭ ফেব্রুয়ারি।

এই ব্যর্থতার পরে নানা কথা উঠছে বাংলা ক্রিকেট মহলে। ব্যাটিং কোচ হিসেবে ভিভিএস লক্ষ্মণের হাজিরা। ক্রিকেটারদের এত সুযোগ সুবিধে দেওয়ার পরেও কেন প্রতি মরসুমে ব্যর্থ হয় দল, সেই নিয়ে কথা বলতে পারেন বাংলার ক্রিকেট আইকন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ও। তিনি এই মুহূর্তে বাড়িতেই রয়েছেন। তিনি এই বিষয়ে কথা বলতে পারেন কোচ অরুণ লাল, সিএবি সভাপতি অভিষেক ডালমিয়া ও অধিনায়ক অনুষ্টুপ মজুমদারের সঙ্গেও।

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More