মুম্বইয়ের ত্রাস বোলিংয়েই চিপকে ‘সূর্যাস্ত’ হায়দরাবাদের, ফের বাজিমাত বুমরাদের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মুম্বই বলুন কিংবা চেন্নাই, এবারের আইপিএলে লো স্কোরিং ম্যাচ হচ্ছে। এটাই যথার্থ পিচ বলা যেতে পারে, যেখানে বোলারদের জন্যও কিছু না কিছু থাকছে। যাঁরা বলে থাকেন, মানুষ খেলা দেখতে যান শুধু রান দেখার জন্য, তাঁদের কাছে এই কোটিপতি লিগ নিরাশার হতে পারে।

এমন এক পিচ বানানো হয়েছে, যেখানে উইকেটে টিকে থাকলে রান আসবে, আবার পেসার কিংবা স্পিনাররা ম্যাচের রং বদলে সহায়তা করছেন।

শনিবার চেন্নাইয়ের চিপক স্টেডিয়ামে তাই হয়েছে। মুম্বই ইন্ডিয়ান্স প্রথমে ব্যাটিং করে তুলেছে ২০ ওভারে ১৫০/৫। বিনিময়ে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ ১৩৭ রানে অলআউট হয়ে গিয়ে ১৩ রানে ম্যাচ হেরেছে।

মুম্বইয়ের পক্ষে আশার কথা দলের দুই ওপেনার এদিন টেনেছেন। কুইন্টন ডি’কক (৩৯ বলে ৪০) ও রোহিত শর্মা (২৫ বলে ৩২) প্রথম উইকেটে ৫৫ রান তোলার পরে দলের হয়ে সহায়তা করেছেন কাইরন পোলার্ড, তিনি ২২ বলে ৩৫ রান করে দলের রান দেড়শো নিয়ে যেতে পেরেছেন।

হায়দরাবাদ বোলিংয়ের পক্ষে বাংলাদেশের মুজিব উর রহমান ও বিজয় শঙ্কর দুটি উইকেট পেয়েছেন, একটি উইকেট নেন খলিল।

সব থেকে অবাক করার মতো বিষয়, মুম্বইয়ের রানের গতি যেভাবে উঠেছে, বিপক্ষ দলও একই ভাবে রান তাড়া করলেও শেষমেশ স্নায়ুর চাপে পড়ে গিয়েছিল। হায়দরাবাদেরও ওপেনারদ্বয় ডেভিড ওয়ার্নার (৩৪ বলে ৩৬) ও জনি বেয়ারস্টো (২২ বলে ৪৩) দারুণ শুরু করার পরে বিরাট সিং ও বিজয় শঙ্কর ছাড়া কেউ সাহায্য করতে পারেননি।

মুম্বই বোলিং অনেক বেশি নিয়ন্ত্রিত। তাদের বোলিং লাইন আপ কেন সবচেয়ে সেরা, প্রতি ম্যাচে প্রমাণ দিচ্ছেন। অল্প পুঁজি থাকার পরেও তারা বোলারদের কাঁধে চেপে বৈতরনী পেরিয়ে যাচ্ছেন অনায়াসে।

দীপক চাহারের আত্মীয় রাহুল চাহার তিনটি উইকেট নিয়ে ম্যাচের রং বদল করতে পেরেছেন। তাঁর লেগ ব্রেকে কাহিল বিপক্ষের বাঘা বাঘা তারকারা। বুমরার কথা আলাদাভাবে কিছু বলার নেই, তিনি চার ওভারে ১৪ রান দিয়ে এক উইকেট নিয়েছেন, এই কার্যকরি বোলিং একটা দলের পক্ষে আশীর্বাদ, ঠিক সেটাই ঘটল ম্যাচে।

আর নিলেনও বিজয় শঙ্করের মতো দামী উইকেট। বিজয় যতক্ষণ ছিলেন, মনে হয়েছে ওয়ার্নাররা হয়তো ম্যাচ জিতে নেবেন। তিনি ২৫ বলে ২৮ করে ফিরতেই মুম্বইয়ের পাশে জয় লেখা সময়ের অপেক্ষা ছিল।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More