ব্রিসবেনে নিম্নমানের হোটেলে বাথরুমও পরিষ্কার করতে হচ্ছে রাহানেদের! হস্তক্ষেপ করতে হল খোদ অসুস্থ সৌরভকেও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এমন অস্ট্রেলিয়া সফর মনে হয় কোনও ভারতীয় দল করেনি। সিরিজের শুরুতে বলা হয়েছিল, সব ফিলগুড পরিবেশে হবে, থাকবে না কোনওরকম বৈরিতা। কিন্তু সিরিজ যত শেষদিকে এসেছে, ততই অজিরা তাঁদের দাঁত-নখ বের করেছে।

সদ্যসমাপ্ত সিডনি টেস্ট ম্যাচেই ভারতীয় দলকে কত ব্যারাকিংয়ের মধ্যে পড়তে হয়েছে। এও হয়েছে, ঋষভ পন্থ যখন ব্যাটিং করছিলেন, সেইসময় ব্যাটিং ক্রিজে এসে পিচকে নষ্ট করে দিয়ে গিয়েছেন স্টিভ স্মিথের মতো সিনিয়র তারকাও। টিম পেইন তো বলেই দিয়েছেন, তাঁরা সারাক্ষণ ভারতের ব্যাটসম্যানদের মনোসংযোগ নষ্ট করতে উঠেপড়ে লেগেছিলেন।

এগুলি পর্যন্ত ঠিক ছিল, কিন্তু সিরিজ জিততে অস্ট্রেলীয়রা কত জঘন্য কৌশল নিতে পারে, সেটি ব্রিসবেনে এসে বুঝতে পারছে টিম ইন্ডিয়া। আজাঙ্ক রাহানের দলের ক্রিকেটারদের এমন এক নিন্মমানের হোটেলে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া রাখার ব্যবস্থা করেছে, সেখানে বাথরুম পরিষ্কার করারও কেউ নেই। ক্রিকেটারদের নিজেদের তা করতে হচ্ছে।

ভারতীয় দলের এক সদস্যের কথায়, ‘‘আমরা ঘরে বন্দি হয়ে রয়েছি। আমাদের নিজেদেরই সব কাজ করতে হচ্ছে। শৌচাগার পরিষ্কার করা থেকে শুরু করে বিছানা পরিষ্কার, সবই করতে হচ্ছে আমাদের। কাছের একটা ভারতীয় রেস্তোরাঁ থেকে খাবার আসছে। সেটা আমরা যে ফ্লোরে রয়েছি, সেখানে দিয়ে যাওয়া হচ্ছে। ফ্লোরের বাইরে আমাদের বেরতে দেওয়া হচ্ছে না। মনে হচ্ছে আমরা জেলে আছি।’’

ব্রিসবেনে খেলতে আসার আগে ভারতীয় দলের পক্ষ থেকে তাদের দেশের কোয়ারেন্টিন নিয়ম মানা হবে না, তেমন হুমকি দেওয়া হয়েছিল। এমনকি এও বলা হয় যে, একান্তই যদি কোয়ারেন্টিনে থাকতে হয় ক্রিকেটারদের নতুন করে, বা দেশে ফেরার আগেও ১৪দিন থাকতে হয়, তা হলে তারা টেস্ট না খেলে দেশে ফিরে আসবে।

এই নিয়ে জল অনেকদূর গড়িয়েছিল। সেই ব্যাপারেও হস্তক্ষেপ করতে হয় বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে। তিনি সেদিন সবেমাত্র হাসপাতাল থেকে বাড়ি এসেছিলেন। আর মঙ্গলবার সৌরভকেই অস্ট্রেলিয়ায় ফোন ঘোরাতে হল। তিনি এই বিষয়ে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন, তেমনি দাবি করছে সংবাদসংস্থা পিটিআই।

সৌরভ এই বিষয়ে কথা বলেছেন বোর্ড সচিব জয় শাহ এবং বোর্ডের মুখ্য আধিকারিক হেমাঙ্গ আমিনের সঙ্গেও। তাঁরাও এটিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখবেন বলেছেন। এবং যত দ্রুত কী ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে, সেই বিষয়টিও সৌরভরা ভাবছেন।

রাহানে, রোহিত শর্মারা মঙ্গলবার ব্রিসবেনের হোটেলে পৌঁছে আবিষ্কার করেন হোটেলে রুম সার্ভিস, হাউস কিপিং, কিছুই নেই! জিম যেটা আছে, সেটা খুবই সাধারণ মানের। সুইমিং পুল আছে বটে, কিন্তু সেখানে যাওয়ার অনুমতি নেই।

প্রথমে ভারতীয় দলের পক্ষ থেকে প্রশাসনিক ম্যানেজার চেক-ইন করতেই চাইছিলেন না। কিন্তু প্রাথমিকভাবে প্রবেশ করলেও তারা এই বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন আয়োজকদের সঙ্গে। কিন্তু ব্রিসবেনের গাব্বা ক্রিকেট সংস্থার পক্ষ থেকে সদর্থক কিছু বলা হয়নি। তারপরেই রাহানে কথা বলেন খোদ সৌরভের সঙ্গে। প্রেসিডেন্ট তারপরেই বোর্ডের বাকি কর্তাদের সঙ্গে কথা বলে এই বিষয়টিকে রীতিমতো গুরুত্ব দেন।

 

 

 

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More