মুম্বই বধে স্বপ্নের ইনিংসে বিশ্বকাপ ফাইনালের রাত ফেরালেন স্টোকস

 

দ্য ওয়াল ব্যুরো : এমন একটা ম্যাচ, যে মঞ্চে গতির লড়াই দেখা গেল। গতি শুধু বোলিংয়ে নয়, ব্যাটিংয়েও হয়, তার প্রমাণ পাওয়া গেল রবিবার আবুধাবির ম্যাচটিতে। প্রকৃতঅর্থের টি ২০ ম্যাচ বলতে যা বোঝায়, তাই হয়েছে।

মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের ১৯৫/৫-র জবাবে রাজস্থান রয়্যালস ১৯৬/২ তুলে দিয়েছে দুই উইকেট হারিয়ে। তাদের জয় আট উইকেটেই। মুম্বইয়ের হার্দিক পান্ডিয়া ছয় নম্বরে ব্যাটিং করতে নেমে ২১ বলে ৬০ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেছেন। ভাবা গিয়েছিল ওটাই হবে দিনের সেরা ইনিংস। কিন্তু চলতি আইপিএল দেখাচ্ছে অনেক মশলা রয়েছে। না হলে বেন স্টোকসের এই ৬০ বলে হার না মানা ১০৭ রানের ইনিংসে মানেটা কী! ১৪টি চার ও তিনটি ছয় মেরে বেন ম্যাচের সেরা।

সঙ্গে সঞ্জু স্যামসন ৩১ বলে ৫৪ রানের যোগ্য সঙ্গত করে গিয়েছেন। এই ম্যাচ বহু কিছুর জবাব দিয়ে দিয়েছে। ধৈর্য্যের সঙ্গে অপেক্ষা করো ভাল মুহূর্তের জন্য, দিনের শেষে ভাল উপহারই অপেক্ষা করে রয়েছে। হার্দিকের জবাব সেই কারণেই বেন স্টোকস, যিনি এবারে ইংল্যান্ডের বিশ্বকাপ জয়ের মহানায়ক ছিলেন।

মুম্বই ব্যাটিং ইনিংসের ১৭তম ওভারে জোফরা আর্চারকে সৌরভ তিওয়ারি দুটি বাউন্ডারি এবং এক ছক্কা মেরে ১৭ রান নেন। পরের ওভারেই অঙ্কিত রাজপুতকে পেয়ে গেলেন হার্দিক পান্ডিয়া। এই এক ওভারেই চারটি ছক্কা মারলেন তিনি। সব মিলিয়ে তিনি নেন ২৭ রান।

পরের ওভার করতে আসেন জোফরা। এবার আর সৌরভ তিওয়ারি কিংবা পান্ডিয়া- কেউ তার ওপর চড়াও হতে পারেননি। বরং, ওভারের প্রথম বলেই সৌরভ তিওয়ারির উইকেট নেন তিনি। পুরো ওভারে তিনি দিলেন মাত্র ৩ রান।

শেষ ওভারে বল করার জন্য স্টিভেন স্মিথ বল তুলে দিলেন কার্তিক ত্যাগির হাতে। ক্রুনাল পান্ডিয়া প্রথম বলে এক রান নিয়ে স্ট্রাইকে দেন হার্দিক পান্ডিয়াকে। এরপরের ৫ বলে তিনটি ছক্কা এবং দুটি বাউন্ডারি মারলেন হার্দিক পান্ডিয়া। নিলেন ২৭ রান।

তখনও বাকি ছিল বেন ধামাকা। তিনি শুরু থেকেই সংহারক মেজাজে। বোল্ট, প্যাটিনসন, বুমরার মতো বিশ্বত্রাস বোলারদের উড়িয়ে তাঁর এই ম্যাচ জেতানো ইনিংস বহুদিন স্মরণে থাকবে ক্রিকেট প্রেমীদের। তাঁর এই ব্যাটিংয়ে ফিরল বিশ্বকাপ ফাইনালের রাত।

সংক্ষিপ্ত স্কোর : মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ২০ ওভারে ১৯৫/৫। হার্দিক ৬০, সূর্যকুমার ৪০, জোফরা ২/৩১, গোপাল ২/৩০। রাজস্থান রয়্যালস ১৮.২ ওভারে ১৯৬/২। বেন ১০৭ নঃআঃ, স্যামসন ৫৪ নঃ আঃ।
রাজস্থান জয়ী ৮ উইকেটে।
ম্যাচের সেরা : বেন স্টোকস

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More