ঋষভরা গেলেন নিভৃতবাসে, কেকেআর শিবিরে জোর ধাক্কা, দেশে ফিরছেন শাকিবরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আইপিএলে নিয়ে একের পর এক সমস্যা তৈরি হচ্ছে, এই কারণে কতদিন নিজেদের জেদ বজায় রাখে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড, সেটাই দেখার বিষয়। কারণ অনেকেই মনে করছেন, এই লিগ থেকে সরকারের কোটি কোটি টাকা লাভ, তাই সব বন্ধ করা হলেও আইপিএল চালাবে সরকার।

পরিস্থিতি অবশ্য অন্য ঈঙ্গিত দিচ্ছে। কেকেআর, সিএসকে শিবিরে করোনা ধরার পরে দিল্লির মাঠ কর্মীদেরও সংক্রমণ ধরা পড়েছে। যে কারণে কেকেআর ও বেঙ্গালুরুর মধ্যে ম্যাচই বাতিল হয়ে গিয়েছে সোমবার। তারই মধ্যে আবার যেহেতু দিল্লি শেষ ম্যাচ কেকেআরের বিপক্ষে খেলেছে, সেই জন্য ঋষভ পন্থের দলকে কোয়ারেন্টিনে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। কেকেআর দলে বরুণ চক্রবর্তী ও সন্দীপ ওয়ারিয়র দু’জনেই কোভিডে আক্রান্ত।

ভারতের মতোই বাংলাদেশেও কোভিড পরিস্থিতি সুখের নয়। ইতিমধ্যেই সে দেশে নতুন করে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। আর এবার কোয়ারেন্টাইনের নিয়মও কঠোর করেছে হাসিনা সরকার। জানানো হয়েছে, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে সে দেশে গেলে ১৪ দিনের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকতেই হবে।

ক্রিকেটারদের জন্যও একই নিয়ম। অতএব শাকিব, মুস্তাফিজুররা ভারত থেকে ফিরলে একই নিয়ম পালন করতে হবে। একমাত্র বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের অনুরোধে নিয়ম সামান্য শিথিল হলেও হতে পারে। সেক্ষেত্রেও অবশ্য স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে বিশেষ অনুমতির প্রয়োজন। সেই কারণেই শাকিবদের থেকে তাঁদের সিদ্ধান্তের কথা জানতে চাওয়া হয়েছে।

বোর্ডের প্রধান নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, “শাকিব ও মুস্তাফিজুরের কাছ থেকে জানতে চাওয়া হয়েছে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ওঁদের কী পরিকল্পনা। সেই মতো স্বাস্থ্যমন্ত্রককেও আমরা জিজ্ঞেস করব, দু’জনকে দেশে ফিরলে কোন প্রোটোকল মেনে চলতে হবে।”

শাকিব দলে সেইভাবে সুযোগও পাচ্ছেন না। পেসার মুস্তাফিজুর রহমান যদিও খেলছেন রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে। কেকেআর শিবির সূত্রে জানা গিয়েছে, শাকিবকে ছেড়ে দেওয়া হতে পারে। যদিও মুস্তাফিজুর কী করবেন, জানা যায়নি। তবে শাকিব দেশে ফিরলে জাতীয় দলের সতীর্থটিও দেশে ফিরতে উদ্যত হবেন, বলাই যেতে পারে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More