‘ডেইলি মেল’-এ স্থান পেল রবি ফাউলারের ইস্টবেঙ্গল, লাল হলুদের মুকুটে নয়া পালক

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আবারও যেন নিঃশব্দে একটি ইতিহাস গড়ল ইস্টবেঙ্গল। শতবর্ষের এই সন্ধিক্ষণে এটিও ক্লাবের একটি বিশেষ মাইলফলক বলা যেতে পারে।

গত দুইদিন আগেই লাল হলুদের সাহেব কোচ রবি ফাউলার ভিডিও কলে কথা বলেছিলেন লিভারপুলের কিংবদন্তি কোচ য়ুরগেন ক্লপের সঙ্গে। এমনকি তিনি ওই কথোপকথনের শুরুতে পরিচয় করিয়ে দেন ইস্টবেঙ্গল টিমের অফিসিয়াল ফটোগ্রাফারের সঙ্গেও। এটাই বলেছিলেন, ‘‘ক্লপ তোমার একজন অসম্ভব গুণমুগ্ধকারী আমারই দলে রয়েছে, ওর সঙ্গে তুমি একবার পরিচয় করো।’’

সেই ফটোগ্রাফার তো লজ্জায় সেইসময় লাল হয়ে গিয়েছিলেন। ক্লপও সেদিন নামী প্রাক্তন ফুটবলার ফাউলারের সঙ্গে কথা বলে খুশিই হয়েছিলেন। কিন্তু সেই চমকের পরেও যে আরও বড় চমক ইস্টবেঙ্গলের জন্য অপেক্ষা করছে, সেটি জানা যায়নি।

এবার একেবারে লন্ডনের প্রথমসারির একটি দৈনিক ‘ডেইলি মেল’ তাদের প্রচ্ছদে ফাউলারে ছবি সহ রিপোর্ট শুরুই করেছে, দ্য ইস্টবেঙ্গল’স নিউ বস…। এখানেই লাল হলুদের ঐতিহ্য আরও একবার বিশ্বের দরবারে উন্মোচিত হয়ে গেল।

রবিবারই ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে লিভারপুল ও ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড মুখোমুখি হচ্ছে। পয়েন্ট তালিকায় ম্যান ইউ শীর্ষে রয়েছে, দ্বিতীয় স্থানে লিভারপুল, তারা তিন পয়েন্টে পিছিয়ে রয়েছে ম্যান ইউর থেকে। এই ম্যাচে ‘ডেইলি মেল’-এর বিশেষজ্ঞদের প্যানেলে রয়েছেন ইস্টবেঙ্গল কোচ তথা লিভারপুল কিংবদন্তি ফাউলারও। তাঁর কথা বলতে গিয়েই ফাউলারের আগে ‘দ্য ইস্টবেঙ্গল বস’ কথাটি লিখেছে। এই ব্রিটিশ কোচ ১৯৯৭ সালে এই হাইভোল্টেজ ম্যাচে লিভারপুলের হয়ে গোল করে নায়ক বনেছিলেন।

ওই রিপোর্টে ফাউলারের নাম তো রয়েইছে, পাশাপাশি উঠে এসে পিলকিনটন, মাঘোমার মতো ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ খেলা ফুটবলারদের কথাও। ফাউলার ‘ডেইলি মেল’র বিশেষজ্ঞ কলামিস্ট বহুদিন ধরেই রয়েছেন। তিনি ইস্টবেঙ্গলের কোচ হয়ে এসেও প্রায়শই নানা প্রতিবেদন লেখেন।

ডেইলি মেল’র মতো নামী সংবাদপত্র ফাউলারের কথা লিখতে গিয়ে জানিয়েছে, ‘‘২০২০ সালের অক্টোবরে ইন্ডিয়ান সুপার লিগের দল ইস্টবেঙ্গলের দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি। সেখানে তিনি আয়ারল্যান্ডের উইঙ্গার অ্যান্টনি পিলকিনটন এবং বার্নলে ও নটিংহ্যাম ফরেস্টের প্রাক্তন ডিফেন্ডার ড্যানি ফক্সকে কোচিং করাচ্ছেন। সারা বিশ্বে কোচিং করানো ফাউলার এই মুহূর্তে ইস্টবেঙ্গলে কোচিং করাচ্ছেন।

চলতি আইএসএলে ইস্টবেঙ্গলের অবস্থা মোটেই ভাল নয়। তারপরেও সমর্থকদের মুখে হাসি ফোটাবে এই ঘটনা। লন্ডনের একটি নামী সংবাদমাধ্যম তাদের ক্লাবের কথা উল্লেখ করছে সম্মানের সঙ্গে। সেটিও বাড়তি তাগিদ জোগাবে লাল হলুদ ফুটবলারদের, কোচ ফাউলারসহ দলের বাকি সাপোর্ট স্টাফদেরও। লাল হলুদ সমর্থকদের কাছেও প্রিমিয়ার লিগের এই বড় ম্যাচের উৎসাহ খানিকটা বেড়েই গেল।

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More