চিপকের পিচের সমালোচনা অজি-ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের, কড়া জবাব দিলেন রোহিত

দ্য ওয়াল ব্যুরো: চেন্নাইয়ে প্রথম টেস্টের প্রথম দিন থেকেই শুরু হয়েছিল পিচের সমালোচনা। দ্বিতীয় টেস্টেও তা বজায় থাকে। পিচ নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছে ইংল্যান্ডের ক্রিকেটাররা। অসন্তোষ শোনা গিয়েছে ইংল্যান্ডের প্রাক্তন অধিনায়ক মাইকেল ভন ও প্রাক্তন অজি ক্রিকেটার মার্ক ওয়-এর মুখে। সেই সমালোচনার জবাব দিলেন ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা। বললেন, ওরা তো আমাদের কথা ভাবে না। তাহলে আমরা কেন ভাবব।

সম্প্রতি বিসিসিআইয়ের তরফে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে পিচের সমালোচনার প্রসঙ্গে রোহিত বলেন, “দুটো দলের জন্যই পিচ এক ছিল। আমি জানি না এটা নিয়ে কেন এত কথা হচ্ছে। ভারতে বহু বছর ধরে একই ভাবে পিচ তৈরি হয়ে আসছে। আমার মনে হয় না কোনও পরিবর্তন হয়েছে বা পরিবর্তন হওয়ার দরকার রয়েছে।”

প্রত্যেক দেশ ঘরের কন্ডিশনের পুরো লাভ তোলার চেষ্টা করে বলেই মনে করেন হিটম্যান। তিনি বলেন, “প্রতিটি দল ঘরের কন্ডিশনকে পুরো ব্যবহার করে। আমরা যখন বাইরে যাই আমাদের সঙ্গেও একই হয়। ওরা তো আমাদের কথা ভাবে না। তাহলে আমরা কেন ওদের কথা ভাবব। আমাদের দলের পক্ষে যেটা ভাল আমরা সেটার চেষ্টা করব। নাহলে ক্রিকেটের মধ্যে হোম-অ্যাওয়ে প্রথা তুলে দেওয়া উচিত। আইসিসিকে বলুন নিয়ম বানাতে যাতে ভারত ও ভারতের বাইরে একই ধরনের পিচ তৈরি হয়।”

অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের অভিযোগ, এই পিচে ব্যাট করা খুব কঠিন। পিচের এই ধরনের চরিত্রের ফলে টেস্ট ক্রিকেটেরই উন্মাদনা কমছে। তার জবাবে রোহিত বলেন, “আমরা যখন বিদেশে যাই তখন ওরাও আমাদের অবস্থা খারাপ করার চেষ্টা করে। তাই আমার মনে হয় পিচ কেমন সেটা নিয়ে আলোচনা না করে খেলা ও প্লেয়ারদের নিয়ে আলোচনা করা ভাল। একজন ব্যাটসম্যান বা বোলারকে নিয়ে আলোচনা করলে কোনও অসুবিধা নেই। কারণ পিচ দুটো দলের কাছেই এক থাকে। তাই যে ভাল খেলবে সে জিতবে।”

চিপকে দ্বিতীয় টেস্ট জেতার পরে একই কথা শোনা গিয়েছিল ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলির গলাতেও। তিনি বলেছিলেন, দ্বিতীয় টেস্টের পিচ প্রথম দিন থেকেই একই রয়েছে। তাই সেখানে টসে জেতা বা হারা গুরুত্ব পেত না। একই পিচে ভারত অনেক ভাল ব্যাট করেছে। কিন্তু সেখানেই ইংল্যান্ডের প্লেয়াররা খেলতে পারেননি। এটা প্লেয়ারদের ব্যর্থতা। তার জন্য পিচকে দোষ দেওয়া উচিত নয় বলেই জানিয়েছিলেন বিরাট। এবার আরও কড়া ভাবে সমালোচনার জবাব দিলেন হিটম্যান।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More