সাড়ে পাঁচ কোটিতে রয় কৃষ্ণকে রেখে দিল এটিকে-মোহনবাগান, ঝাঁপাচ্ছে ব্রাইটকে পেতেও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনা দ্বিতীয় ঢেউয়ে যখন সারা ভারত দিশেহারা, সেইসময় সবুজ মেরুন সমর্থকদের জন্য খুশির খবর দিলেন কর্তারা। আগামী মরসুমের জন্যও তারা রেখে দিলেন রয় কৃষ্ণকে। গতবার এই ফিজি তারকা পেয়েছিলেন তিন কোটি টাকা, এবার আরও আড়াই কোটি টাকা বেশিতে তাঁর সঙ্গে চুক্তি হল বৃহস্পতিবারই।

গত মরসুমে রয় কৃষ্ণের নামের পাশে ছিল ২৩ ম্যাচে ১৪টি গোল। বহু ম্যাচে তিনি ছিলেন ত্রাতার ভূমিকায়। গোলের জন্য সতীর্থদের বাড়িয়েছেন ৮টি পাস। দলের এই নামী স্ট্রাইকারকে ধরে রাখতে কর্তারা সচেষ্ট ছিলেন। কিন্তু তাঁর দাবি ছিল ছয় কোটি, অবশেষে সাড়ে পাঁচ কোটিতে তাঁর সঙ্গে রফা হয়েছে।

এ বারের আইএসএল চ্যাম্পিয়ন মুম্বই সিটি এফসিও রয় কৃষ্ণকে দলে চেয়েছিল। তাদের সঙ্গে কথাবার্তা অনেকদূর এগিয়েও গিয়েছিল। সেই দড়ি টানাটানিতে শেষ হাসি হাসল এটিকে মোহনবাগান।

গত দু’ মরসুম ধরেই এটিকে মোহনবাগানের প্রাণভ্রোমরা হয়ে উঠেছিলেন ফিজির তারকা স্ট্রাইকার। তাঁর হাত ধরেই কিন্তু এটিকে মোহনবাগান একের পর এক সাফল্যের মুখ দেখেছে। গত বছর আইএসএলের ফাইনালে উঠলেও শেষ রক্ষা হয়নি। মুম্বই সিটি এফসি-র কাছে হেরে যেতে হয়।

সব থেকে বড় বিষয়, এবার কোচ আন্তোনিও লোপেজ হাবাস যে তালিকা দিয়েছিলেন, তাতে সবার উপরে নাম ছিল রয়েরই। তাই তাঁকে পেতে মরিয়া ছিলেন কর্তারা। যদিও ডেভিড উইলিয়ামসকে রাখবে কিনা ক্লাব, সেই নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে।

রয় কৃষ্ণকে ফাইনাল করার পরে এটিকে-মোহনবাগান কর্তারা এবার ব্রাইট এনোবাখারেকে পেতে ঝাঁপিয়েছে। ইস্টবেঙ্গলের প্রতি মোহভঙ্গ ঘটেছে ব্রাইটের, এটা আন্দাজ করেই তাঁর এজেন্টের সঙ্গে কথা বলেন সবুজ মেরুন কর্তারা। ব্রাইট যদিও এখনও সবুজ সংকেত দেননি চির প্রতিপক্ষ ক্লাবকে। তবে ব্রাইটকেও অনেক টাকার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে, ক্লাব সূত্রে খবর।

মনে করা হচ্ছে, রয় কৃষ্ণ ও ব্রাইট এনোবাখারে জুটিই স্বপ্ন সবুজ মেরুন কর্তাদের। এদিকে শোনা যাচ্ছে, ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি সম্পন্ন করার পরে রয় কৃষ্ণ এএফসি কাপ খেলতে মালদ্বীপে যেতে পারেন, তেমনই আভাস দিয়েছেন কর্তাদের।

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More