সিরাজের পিতৃবিয়োগ, ভারতীয় পেসারকে বাবার মৃত্যুর খবর দিলেন কোহলি- শাস্ত্রী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বাবা মহম্মদ ঘাউস ছিলেন তাঁর আদর্শ। হায়দরাবাদের বাড়িতে নিদারুণ কষ্টে তাঁদের দিন কাটত। বাবা সারাদিন অটো চালাতেন, সেই উপার্জিত অর্থে তাঁর ক্রিকেট খেলা শুরু।

আইপিএলে যখন নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে দুরন্ত বোলিং করেছিলেন মহম্মদ সিরাজ, তার ঠিক আগেরদিনই বাবাকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হয় শ্বাসকষ্টের কারণে। কিন্তু ছেলের বোলিং পারফরম্যান্সের কথা শুনে বাবার শরীর ভাল হয়ে যায়! তিনি সিরাজের বন্ধুদের জানিয়েছিলেন, আমার শরীর ঠিক হয়ে গিয়েছে ছেলের বোলিং দেখে, বন্ধুরা ঘাউসকে বাড়িতে ফিরিয়েও আনেন।

তারপর তাঁর পুত্রও আইপিএল থেকে সোজা অস্ট্রেলিয়া চলে এসেছেন ভারতীয় দলের হয়ে খেলতে। আর শুক্রবারই ভারতীয় দলের নেটে যখন বোলিং করছিলেন সিরাজ, তখন দলের কোচ রবি শাস্ত্রী ও অধিনায়ক বিরাট কোহলি খবর দেন, তাঁর বাবা আর নেই। চলে গিয়েছেন শেষ ঘুমের রাজত্বে।

সেই যে গুম হয়ে বসে ছিলেন, আর ওঠেননি। বাবার মৃত্যর সময়ে শেষ দেখা দেখতেও পারলেন না। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে তাঁকে টিম ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকে হায়দরাবাদের বাড়িতে ফিরিয়ে দেওয়া হতো। কিন্তু করোনা পরিস্থিতিতে পুরো দল এই মুহুর্তে রয়েছে কোয়ারেন্টিনে।

ভারতের উদীয়মান পেসারের তাই আক্ষেপের শেষ নেই। আইপিএল ও ঘরোয়া ক্রিকেটে ভাল খেলার কারণে তাঁকে নির্বাচকরা অস্ট্রেলিয়াগামী দলে স্থান করে দেন। কিন্তু সেই আনন্দের পাশে কষ্টও বুকে বেড়াতে হবে, বাবার পাশে থাকতে পারলেন না শেষ সময়ে।

দেশের এক নামী ইংরাজি ওয়েবসাইটকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সিরাজ এদিন রাতে বলেছেন, ‘‘আমার বাবার ইচ্ছা ছিল যে ছেলে দেশকে গর্বিত করবে। আর আমি নিশ্চিত ভাবেই তা করব। বাবার মৃত্যুর খবর আমার কাছে বিরাট বড় ধাক্কা। জীবনের সবচেয়ে বড় সাহারা হারালাম। দেশের হয়ে আমি খেলছি, এই স্বপ্ন দেখতেন বাবা। আমি খুশি যে বাবার স্বপ্ন সফল করে তাঁকে খুশি করতে পেরেছি।’’

সিরাজের বাবা মারা গিয়েছেন ফুসফুস জনিত কারণে, বয়স হয়েছিল মাত্র ৫৩। সিরাজ ভারতীয় দলে খুবই জনপ্রিয়, তাঁকে সবাই ডাকে ‘মিঞা’ বলে। আইপিএলে কোহলির দল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর দলের হয়েই খেলেছেন। তাঁর বোলিং দেখে ডেইল স্টেইনও উচ্ছ্বসিত ছিলেন, তিনি এবারই জানিয়েছিলেন, ‘‘সিরাজের দারুণ পেস, বহুদিন ভারতীয় দলকে সেবা করবে।’’

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More