কোভিড কেয়ার প্রকল্পে সৌরভ, রবিবার থেকেই রাজ্যে অক্সিজেন সরবরাহ করবে ‘দাদাস আর্মি’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অবশেষে করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে যোদ্ধা হিসেবে সামিল হতে চলেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি কেন আসরে নামেননি, এই নিয়ে বহু প্রশ্ন চলছিল। অনেকে এও বলছিলেন, বাংলার সেরা আইকন কেন এগিয়ে আসছেন না কোভিড প্রকল্পের নানাবিধ কাজে।

করোনার প্রথম ঢেউয়ে সৌরভ ভারত সেবাশ্রম সংঘ, রামকৃষ্ণ মিশন, ইস্কন-সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে দুঃস্থ ও অসহায় মানুষদের মধ্যে চাল বিলি করেছিলেন। ইস্কনের মাধ্যমে লকডাউনে কলকাতার বিভিন্ন হাসপাতালে রোগীর আত্মীয়দের জন্যও খাবার সরবরাহ করেছিলেন।

এবারও সৌরভ গাঙ্গুলি ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে মোট ৮টি জেলায় অক্সিজেন কনসেনট্রেটর সরবরাহের কাজ শুরু হবে রবিবার থেকে। ভারতে তো বটেই, এ রাজ্যে অক্সিজেনের ক্ষেত্রে সাধারণ মানুষের আতঙ্কের শেষ নেই। সেটি ভেবেই ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক তাঁর দলবদল নিয়ে এই কাজে ঝাঁপিয়ে পড়ছেন। তাঁর এই উদ্যোগে থাকছেন দাদা স্নেহাশিস গঙ্গোপাধ্যায়ও।

তিনি জানালেন, ‘‘মহারাজ এটা নিয়ে ভেবেছে অনেকদিন ধরেই, তারপর এই নিয়ে আমার সঙ্গে কথা হয়েছে। আমিও বলেছি অক্সিজেনের কথা, এটি কোভিড কেয়ার প্রকল্পে যুক্ত করলে বিষয়টি মানুষের পক্ষে ভাল হয়। তাই আমরা এ কাজে নামছি।’’

যদিও সৌরভ একা এই বৃহত্তর যুদ্ধে সামিল নন, তাঁর সঙ্গে রয়েছে পার্থ জিন্দালের জেএসডব্লিউ গ্রুপ এবং শতদ্র দত্ত গ্রুপ অব ইন্ডাজস্ট্রিজ। জিন্দাল গ্রুপের সঙ্গে সৌরভের সম্পর্ক বহুদিনের। দিল্লি ক্যাপিটালসের পরামর্শদাতা হিসেবে যুক্ত হওয়ার ক্ষেত্রেও এই সংস্থার মালিকের অবদান ছিল। সৌরভই এ ব্যাপারে প্রস্তাব দেন জিন্দালের কর্ণধারকে, তিনি রাজিও হয়ে যান করোনায় মানুষের পাশে থাকার জন্য।

এ ব্যাপারে উদ্যোগী ভূমিকা নিয়েছেন ক্রীড়া ব্যবস্থাপক শতদ্রু, তিনিও জানিয়েছেন, ‘‘বাংলার মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারলে ভাল লাগবে আমাদের। দাদাই আমাদের প্রেরণা দিয়েছেন, তিনি এই কাজে দ্রুত নামতে চাইছিলেন। কিন্তু আগে সবকিছু ব্যবস্থা করেই আমরা ৩৫দিন ধরে এই প্রকল্পকে টেনে নিয়ে যাব।’’

 

 

 

Leave a comment

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More