যারা বাউন্সার খেলতে পারে না, তাদের ‘কনকাশন সাব’ নেওয়া উচিত হয়নি, তোপ সানি ও মঞ্জরেকরের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তিনি একটা সময় বিশ্বত্রাস ক্যারিবিয়ান পেস ব্যাটারিকে মোকাবিলা করেছেন কোনও হেলমেট ছাড়াই। সেই কারণেই ভারতীয় ক্রিকেটে পূজিত হন সুনীল গাভাসকর।

দেশের ক্রিকেটের সেই মহান আইডল ক্ষুব্ধ রবীন্দ্র জাদেজার পরিবর্তে যজুবেন্দ্র চাহালের কনকাশন সাব হিসেবে মাঠে নামার বিষয়ে। সানি জানিয়েছেন, ‘‘যে ব্যাটসম্যান বাউন্সার খেলতে পারে না, তার কনকাশন সাব নেওয়া উচিত নয়। এতে করে ক্রিকেটের সার্বিক ক্ষতিই হবে।’’

ধারাভাষ্য দিতে গিয়ে গাভাসকর বারবার বিতর্কের মধ্যে পড়েছেন। বেশ কিছুদিন আগে তিনি বিরাট কোহলি নিয়ে বলেছিলেন, কোভিড পরিস্থিতিতে যখন লকডাউন ছিল, সেইসময় কোহলি মনে হয় অনুষ্কার বোলিং সামলেছিল। বিষয়টি অনেক জলঘোলা হয়।

এবার জাদেজার বাউন্সার খেলতে না পারার বিষয়টি নিয়ে মুখ খুলেছেন এই কিংবদন্তি ক্রিকেটার। সানি বলেন, ‘‌‘‌কনকাশন সাবের প্রসঙ্গে জিজ্ঞেস করলে বলব, আমি পুরোপুরি এই নিয়মের বিরুদ্ধে। আমি একটু পুরনো আমলের, কিন্তু ক্রিকেটের ভাল-মন্দ বুঝি, তাই এই নিয়ম ক্রিকেটের পক্ষে ভাল নয়।’’

ওয়ান ডে সিরিজ হারের পর টি–টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচেই জয় পেয়েছে বিরাট কোহলির ভারত। কিন্তু এই জয়ের থেকেও বেশি আলোচিত হচ্ছে ‘কনকাশন সাব’ হিসেবে চাহালের মাঠে নামার বিষয়টি।

ভারতের নামী প্রাক্তন ক্রিকেটার সঞ্জয় মঞ্জরেকর আবার ম্যাচ শেষে ভারতের দিকে নিয়ম ভাঙার অভিযোগ তুলেছেন। তিনি বলেছেন, ‘‘জাদেজার মাথায় যখন বলটি লাগল, তখনই টিম ইন্ডিয়ার ফিজিওর উচিত ছিল সেই চোটের পরীক্ষা করা। নিয়ম অন্তত তাই বলছে। কিন্তু তখন সেই চোটের পরীক্ষা করা হয়নি। জাদেজা পরে বেশ কয়েকটি বলও খেলে। পরে টিম ইন্ডিয়ার তরফ থেকে পরিবর্তনটি নেওয়া হয়। কিন্তু আগেই জাদেজার চোটটি পরীক্ষা করা উচিত ছিল। তাহলে আর কোনও সমস্যাই থাকত না।’’

কনকাশন সাব নেওয়ার কারণেই জাদেজা পরের দুটি ম্যাচে খেলতে পারবেন না। তাঁর পরিবর্তে দলে এলেন শার্দুল ঠাকুর। যদিও এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রাক্তন ক্রিকেটারদের একটা অংশ রীতিমতো তোপ দেগেছে এই নিয়মের বিরুদ্ধে। বলা হচ্ছে, আইনের ফাঁক খুঁজে নিয়ে কোহলির দল তার ফায়দা নিয়েছে।

তবে জাদেজার পরিবর্তে চাহালের নামার বিষয়ে অবশ্য সানি টিম ইন্ডিয়ার সমর্থনেই কথা বলেন।গাভাসকর বলেছেন, ‘‘ওই পরিবর্তন নিয়ম মেনেই হয়েছে, তখন আমার জাদেজার পরিবর্তে চাহালের নামা নিয়ে কোনও সমস্যা নেই। কারণ আইন থাকলে সেটিকে মাথায় রেখে এগিয়ে চলাই উচিত।’’

 

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More