ফুটবলের বিদ্রোহী লিগে নাম লেখাতে পারেন তিন মহারথী, মেসি, রোনাল্ডো, নেইমার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সমান্তরাল বিরোধী একটা লিগ করার ভাবনায় বড় ক্লাবগুলির কর্তারা। তাঁরা মনে করছেন, অর্থ নিয়ে এসে তারা, অথচ উয়েফা ছড়ি ঘোরাচ্ছে দিনের পর দিন। সেই কারণেই সমান্তরাল একটা মঞ্চ থাকলে উয়েফাও জব্দ থাকবে।

বড় ক্লাব মানে তারকা সন্নিবেশ রয়েছে যে দলগুলিতে, তাকেই বোঝাচ্ছে।রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা, জুভেন্টাস, ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড, পিএসজিকে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ যা করতে পারে না, সেটাই করে দেখাবে এই লিগ।  নয়া লিগকে ডাকা হচ্ছে ‘ইউরোপিয়ান সুপার লিগ’ নামে। এত দিন শোনা গিয়েছিল, এই লিগ খেলার জন্য আগ্রহ দেখিয়েছে ১৬টি ক্লাব। আর এমন এক টুর্নামেন্টে ব্যস্ত থাকা মানেই তো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের বিদায় পাকা হয়ে যাওয়া।

ফরাসী দৈনিক ‘লা পারসিয়েন’ দাবি করেছে, সব শীর্ষ দলই এই লিগে খেলতে চায় তারকাদের নিয়েই। সেই কারণে লিওনেল মেসি, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো, নেইমারদের খেলার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। লা পারিসিয়েন জানিয়েছে, ১৬টি দল নয়, ২০টি দল নিয়ে হবে সুপার লিগ। এর মধ্যে স্থায়ী দলের সংখ্যা ১৫। অর্থাৎ এই ১৫ দল সব সময় এই লিগে থাকবে। বাকি পাঁচ দলকে আমন্ত্রণ জানানো হবে প্রতি মরসুমে।

ফিফা হুমকি দিয়েছে, যেসব ক্লাব এই বিকল্প টুর্নামেন্টে খেলবে, সেই ক্লাবগুলো ও তাদের খেলোয়াড়দের ফিফা ও এর মহাদেশীয় আয়োজিত কোনও টুর্নামেন্টে খেলতে দেওয়া হবে না। নিষিদ্ধ হবে সেই ক্লাবগুলো, নিষিদ্ধ হবেন সেই খেলোয়াড়েরা। ইউরো কাপ, কোপা আমেরিকা, এশিয়া কাপ, আফ্রিকান নেশনস কাপ এবং বিশ্বকাপের মতো টুর্নামেন্টে এসব খেলোয়াড়কে আর দেখা যাবে না!

রিয়াল মাদ্রিদ সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ ও জুভেন্টাস সভাপতি আন্দ্রেয়া আগনেল্লি এ ব্যাপারে সবচেয়ে বেশি আগ্রহী এবং যে অর্থের প্রস্তাব তাঁরা দিচ্ছেন, তাতে আপত্তি থাকার কথা নয় কোনও দলেরই। ওই পত্রিকা জানিয়েছে, ‘‘প্রতি মরসুমে পাঁচ ক্লাবকে আমন্ত্রণ জানানো হবে। ২০ দলের এই লিগের শেষে প্লে-অফ থাকবে। শীর্ষ ছয় দল ৩৫ কোটি ইউরো পাবে। যেখানে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ চ্যাম্পিয়ন দল পায় আট কোটি ইউরো।’’

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More