দেড় দিনে ১৪০ ওভারে ম্যাচ শেষ, ভাঙল ৮৬ বছর আগের রেকর্ড, কটাক্ষ করে টুইট যুবরাজের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এমন ম্যাচ বহুদিন পরে টেস্ট ক্রিকেটে দেখা গিয়েছে। দেড় দিনে কোনও টেস্ট ম্যাচ শেষ হয়ে যাচ্ছে, সেটি অবাক করার মতোই। যুবরাজ সিং এদিন ম্যাচ শেষ হতেই টুইট করেছেন, ‘‘একটা টেস্ট ম্যাচ দুই দিনে (কার্যত দেড় দিন) শেষ হয়ে যাচ্ছে, এটি কি টেস্ট ক্রিকেটের জন্য ভাল বিজ্ঞাপন? এই ধরনের পিচে অনিল কুম্বলে, হরভজন সিংরা ৮০০ থেকে হাজারটি উইকেট পেতে পারতেন।’’

বিশেষজ্ঞদের একটি অংশ বলছেন, মোতেরা স্টেডিয়ামের এই পিচ কোটলার বাইশগজকেও হার মানিয়েছে। ৫দিনে ৩ সেশন করে মোট ১৫টি সেশন। দিনে ৯০ ওভার করে খেলা হওয়ার কথা মোট ৪৫০ ওভারের। ব্যাপক সমারোহের পরেও এই ম্যাচ শেষ হয়ে গিয়েছে ১৪০.২ ওভারেই। মাত্র দেড় দিনেই ম্যাচ শেষ। পুরো ১০টি সেশন বাকি থেকে গেল মোতেরা টেস্টের।

এই হারের পর বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠতে পুরোপুরি ব্যর্থ ইংল্যান্ড। লর্ডস ফাইনালে তারা খেলতে পারছে না এটা নিশ্চিত। তবে জয়ের কারণে ভারতের সম্ভাবনা পুরোপুরি টিকে এখনও পর্যন্ত। একই সঙ্গে চার ম্যাটের সিরিজে ভারত এগিয়ে ২-১ ব্যবধানে।

পুরো ম্যাচে খেলা হয়েছে ১৪০.২ ওভারের (৪৮.৪ + ৫৩.২+৩০.৪+৭.৪)। এর মধ্যেই খেলা হয়েছে পুরো চারটি ইনিংস। প্রথম দিন খেলা হয়েছে মোট ৮১.৪ ওভার। দ্বিতীয় দিন খেলা হয়েছে ৫৮.৪ ওভার। আজ বৃহস্পতিবারই একদিনেই পড়েছে মোট ১৭টি উইকেট। ভারতের প্রথম ইনিংসে ৭টি এবং ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংসে ১০টি উইকেট।

দ্বিতীয় দিনে ৩১.২ ওভারের খেলা পুরোপুরি বাকিই থেকে গেছে। সব মিলিয়ে চার ইনিংসে রান হয়েছে মোট ৩৮৭টি। এর মধ্যে ইংল্যান্ডের মোট রান ১৯৩। ভারতের মাটিতে দুই ইনিংস মিলে অন্য কোনও দেশের এটাই সর্বনিম্ন।

১৯৩৫ সালের পর থেকে আর কোনও টেস্ট ম্যাচ এত কম সময়ে মীমাংসা হয়নি। ১৯৩৫ সালের পর থেকে এটাই সবথেকে কম ওভারে শেষ হওয়া টেস্ট ম্যাচ। আগের রেকর্ড ছিল ১৯৪৬ সালের মার্চে ওয়েলিংটনে নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে ম্যাচ। সেটি শেষ হতে ৫ ওভার বেশি লেগেছিল। সেই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া ইনিংস ও ১০৩ রানে নিউজিল্যান্ডকে হারিয়েছিল।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More