ভেবেছিলাম আমিই জিতেছি, টুইট দেখে বুঝতে পারি হেরে গেছি: ভেঙে পড়ে বলছেন মেরি কম

দ্য ওয়াল ব্যুরো: একটুর জন্য হেরে গিয়েছেন দেশের বক্সিং তারকা মেরি কম। অলিম্পিকের ১৬ রাউন্ডে রুদ্ধশ্বাস লড়েছেন তিনি। আশ্চর্যের ব্যাপার হল, সে লড়াইয়ে যে জিততে পারেননি, তা জানতেনই না মেরি কম। বরং তিনি ভেবেছিলেন, আর মাত্র একধাপ দূরেই অলিম্পিক্স পদক! এমনকি জেতার পরে রীতিমতো আনন্দের সঙ্গেই ডোপ টেস্টের জন্য যাচ্ছিলেন মেরি। সেই সময়েই নাকি টুইটার থেকে জানতে পারেন, যে অলিম্পিক্স থেকে ছিটকে গিয়েছেন তিনি!

গতকাল মেয়েদের ৪৮ থেকে ৫১ কেজি ওজনের বিভাগের দ্বিতীয় ম্যাচে রিও অলিম্পিক্সের ব্রোঞ্জজয়ী বক্সার কলম্বিয়ার ইংগ্রিট ভ্যালেন্সিয়ার কাছে হেরে যান মেরি। তবে দেখা যায়, তার পরেও হাসছিলেন তিনি। হাতও তুলতে দেখা যায় তাঁকে। তখন কেউ জানতেন না, যে মেরি নিজেই বোঝেননি তাঁর পরাজয়!

পরে সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘আমি জানতাম আমি জিতেছি। ম্যাচের পর আমি যখন ডোপিং কেন্দ্রে নমুনা দিতে ঢুকেছি, তখনও আমি বিশ্বাস করতে পারিনি যে আমি হেরে গিয়েছি। আমার কোচ আমায় বলছিলেন, আমি জিতে গিয়েছি। উনি আমায় সান্ত্বনা দিতে চাইছিলেন, এতদূর আসার জন্য। কিন্তু সেটার অর্থ কী, তা আমি তখন বুঝে উঠতে পারিনি। আমি ভেবেছিলাম আমি সত্যিই জিতেছি।’

মেরি আরও বলেন, ‘ভেবেছিলাম, আমি জিতে গিয়েছি। সেটাই আমার মনের মধ্যে ছিল। তার পরে কিরেণ রিজিজুর টুইট দেখি। আমি হতবাক হয়ে যাই। ভেঙে পড়ি। আমি জানি না কী বলব। বিশ্বাস করতে পারছি না, কী করে এরকম সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। কিন্তু কিছু বলারও নেই, কারণ আমরা টোকিও অলিম্পিক্সে প্রতিবাদ করতে পারব না।’

শুধু তাই নয়, মেরি কমের অভিযোগ, ম্যাচ শুরু হওয়ার আগেই নাম লেখা পছন্দের জার্সি তাঁকে পরতে দেওয়া হয়নি। এক মিনিট আগে বলা হয় পোশাক বদলাতে। মনঃসংযোগ ক্ষুণ্ণ হয় তাঁর।

সব মিলিয়ে এই হারকে অন্যায় বলেই মনে করছেন মেরি কম। ইন্টারন্যাশনাল অলিম্পিক কমিটি যে বক্সিং টাস্ক ফোর্সকে রেখেছে, মেরির অভিযোগের তির সেদিকেই। দু’রাউন্ডে এগিয়ে থাকা সত্ত্বেও কোন কারণে তাঁকে ২-৩ ব্যবধানে হারানো হল সেটাই বুঝতে পারছেন না তিনি। মেরি বলেন, ‘প্রচুর স্বার্থত্যাগ করে দেশের হয়ে পদক জেতার লক্ষ্যেই নেমেছিলাম। আমিই জিতছিলাম। কিন্তু আমাকে হারিয়ে দেওয়া হল! বাউটের পরও সেটা বিশ্বাস করতে পারছি না। টাস্ক ফোর্সে কী চলছে বুঝতেই পারছি না।’

বাউটের শেষে মেরির প্রতিপক্ষ ভ্যালেন্সিয়াকে দেখা যায় তিনি মেরি কমের হাত উঁচুতে তুলে ধরছেন। মেরিকেও দেখা গিয়েছিল স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে নমস্কার করতে। কিন্তু পরে পরাজয়ের কথা জানতে পেরেই আকাশ থেকে পড়েন মেরি, ভেঙে পড়েন কান্নায়।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More