মাঠেই আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক জুড়লেন কোহলি, সমর্থন পেলেন পুরো দলের

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ফের সেই চেনা ছবি ফিরল বিরাট কোহলির হাত ধরে। আম্পায়ারদের সঙ্গে তর্কের সেই দৃশ্য আবারও দেখা গেল কেপ টাউনের মাঠে। এই ঘটনায় জোর প্রতিবাদ করেছেন ভারত অধিনায়ক, যে কারণে পুরো দলের সমর্থনও পেয়েছেন তিনি।

বুধবার খেলা শুরু হতেই ঘটনাটি দেখা গিয়েছে। দক্ষিণ আফ্রিকা ইনিংসের ১২তম ওভারে মহম্মদ শামিকে ফলো-থ্রুয়ে পিচের ডেঞ্জার জোনে পা দেওয়ার জন্য সরকারিভাবে সতর্ক করেন আম্পায়ার এরাসমাস। টিভি রিপ্লেতে যদিও দেখা গিয়েছে শামি কোনওসময়ই ডেঞ্জার জোনে পা দেননি। তবুও কেন তাঁকে সতর্ক করছেন আম্পায়ার, সেটি জানতে ছুটে আসেন কোহলি।

ভারতীয় দলনেতা এসে জানতে চান কেন আম্পায়ার এমনটি বলছেন। কারণ ওভারে অন্তত দুটি ক্ষেত্রে এমন হলে সেই বোলারকে বাতিল করা হয়। সেদিক থেকে সমস্যা হতে পারত ভারতের। তাই তিনি জোরালো প্রতিবাদ করেন। এমনকি আম্পায়ারের থেকে সতর্ক করা হলে সেই বোলারও ভয়ে ছন্দহীন হতে বাধ্য।

এরাসমাস ভারত অধিনায়ককে বোঝানোর চেষ্টা করেন যে ডেঞ্জার জোনের কাছে চলে যাচ্ছেন বলেই শামিকে সতর্ক  করেছেন। যদিও কোহলিকে মোটেও খুশি দেখায়নি আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে। একা কোহলিই নয়, বরং ভারতীয় দলের সকলেই অধিনায়কেের প্রতিবাদকে সমর্থন জানান।

শামি অবশ্য দ্বিতীয় দিনের শুরুতে উইকেট তুলতে পারেননি। এডেন মার্করামকে ফিরিয়ে ভারতকে দিনের প্রথম সাফল্য এনে দেন জসপ্রীত বুমরাহ। পরে নাইটওয়াচম্যান হিসেবে প্রথম দিনে ব্যাট করতে নামা কেশব মহারাজকে ফিরিয়ে দেন উমেশ যাদব।

এমনকি চলতি টেস্টে দু’দলের মধ্যে বাকবিতণ্ডাও দেখা গিয়েছে। প্রথম দিনেই যেমন বিরাট কোহলির বিরুদ্ধে নেওয়া এক রিভিউ নিয়েই বেঁধে গেল কোহলি-এলগারের।

ডুয়ানে অলিভিয়ের বলে কোহলির বিরুদ্ধে কট বিহাইন্ডের আপিল করে দক্ষিণ আফ্রিকা। আম্পায়ার আউট না দেওয়ায় রিভিউ নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় প্রোটিয়া দল। সেখোনে স্নিকোমিটারে স্পষ্ট ধরা পড়ে, কোহলির ব্যাট নয়, বরং থাই প্যাডে লেগে বল কিপারের কাছে গিয়েছে।

স্বাভাবিকভাবেই সেই আপিল নাকচ করে দেওয়া হয়। তবে এই সিদ্ধান্তের পরেই দুই দলের দুই অধিনায়ক, কোহলি ও এলগার কথা কাটাকাটিতে জড়িয়ে পড়েন। এলগারকে সেই বাক্য বিনিময়ের পর হতাশায় মাথা নাড়াতেও দেখা যায়।

 

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.