বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচে তর্কাতর্কি, চরম বিতর্ক, শাস্তির মুখে দুই ক্রিকেটার

1

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বাংলাদেশ (Bangladesh) ও শ্রীলঙ্কার (Srilanka) ক্রিকেটারদের মধ্যে সম্পর্কের কোনও উন্নতি দেখা যাচ্ছে না। এমনই বৈরিতার সম্পর্ক যে একটু অন্যরকম কিছু ঘটলেই সেটি মাত্রা ছাড়িয়ে যায়। রবিবারও ম্যাচে তাই ঘটেছে লিটন দাস (Litton Das) ও লাহিরু কুমারার (Lahiru Kumara) সঙ্গে।

২০১৮ সালের নিদাহাস ট্রফিতেও একই কাণ্ড ঘটেছিল। সেইসময় অর্ধেক ম্যাচ খেলেই পুরো দল নিয়ে উঠে যেতে চেয়েছিলেন বাংলাদেশের তৎকালীন অধিনায়ক শাকিব আল হাসান।

একটা সময় মুশফিকুর রহিমের নাগিন ড্যান্সও বিতর্ক তৈরি করেছিল। আরও একবার বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ম্যাচ উত্তেজনা নিয়ে এল। ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারে লিটন দাসকে আউট করে সম্ভবত স্লেজিং করেছিলেন শ্রীলঙ্কান পেসার লাহিরু কুমারা।

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে কবে কার বিরুদ্ধে নামছেন কোহলিরা? মহারণের আগে ঝালিয়ে নিন সূচি

বাংলাদেশের হয়ে ওপেন করতে নামেন লিটন। সেই সময় কুমারার বলে ব্যাট করার সময় তাঁর মারা একটি বল ফিরে আসে শ্রীলঙ্কার বোলারের হাতেই। সঙ্গে সঙ্গে সেই বল ছুঁড়ে দিয়েছিলেন তিনি। লিটনের গায়ে না লাগলেও সেই ঘটনার প্রভাব সেখানেই থেমে যায়নি।

ষষ্ঠ ওভারের পঞ্চম বলে কুমারার বলেই ক্যাচ দিয়ে আউট হন লিটন। মিড অফে শনাকার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন বাংলাদেশের ওপেনার। সঙ্গে সঙ্গে দেখা যায় কুমারা এবং লিটনের মধ্যে প্রবল তর্কাতর্কিও হয়েছে। বাংলাদেশের অন্য ওপেনার মহম্মদ নঈম এসে মধ্যস্থতা করেন। লিটন এবং কুমারাকে ধাক্কাধাক্কি করতেও দেখা যায়।

তারপর দুজনের মধ্যে শুরু হয় উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়। এমনকি ধ্বস্তাধ্বস্তিও হয়েছে। লিটনকে ব্যাট উঁচিয়ে মারতে দেখা যায়। পরিস্থিতি সামাল দিতে এগিয়ে আসেন আম্পায়ার। এমনকি বাকি ক্রিকেটাররাও এসে পরিস্থিতি সামাল দেন।

বিতর্ক বেশিদূর এগোয়নি, যদিও লিটন ও লাহিরুকে ম্যাচ রেফারি শাস্তি দেবেন, সেটি পরিষ্কার। টি ২০ বিশ্বকাপ সবে শুরু হয়েছে, তার মধ্যেই এমন বৈরিতার ছবি দেখা গেল। ভারত-পাক ম্যাচে কী হবে, সেই নিয়েই চলছে আলোচনা।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like
1 Comment
Leave A Reply

Your email address will not be published.