জোর ধাক্কা জোকারের, বিশেষ ক্ষমতায় জকোভিচের ভিসা বাতিল করল অস্ট্রেলিয়া সরকার

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: লড়াইটা হাড্ডাহাড্ডিই ছিল। কিন্তু শেষ রক্ষা হল না জোকারের। ইমিগ্রেশন আইনের বিশেষ ক্ষমতায় শেষ পর্যন্ত বিশ্বের এক নম্বর টেনিস তারকা নোভাক জকোভিচের ভিসা বাতিল করল অস্ট্রেলিয়া সরকার।

ভিসা বিতর্কে জোকারকে নিয়ে টানাপড়েন চলছেই। অস্ট্রেলিয়া সরকারের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে  সোমবারই ফেডারাল কোর্টে গিয়েছিলেন জকোভিচ। এরপরেও যে তাঁর ভিসা বাতিল হতে পারে সে নিয়ে হুঁশিয়ারি দিয়েই রেখেছিল অস্ট্রেলিয়া সরকার। আজ শুক্রবার দেশের অভিবাসন বিষয়ক মন্ত্রী অ্যালেক্স হক নিজের বিশেষ ক্ষমতায় দ্বিতীয়বারের জন্য সার্বিয়ান তারকার ভিসা বাতিল করে দেন। ফলে আগামী ১৭ জানুয়ারি থেকে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে জকোভিচের অংশগ্রহণ নিয়ে সংশয় থেকেই গেল।

কোভিডের বাড়াবাড়ির কারণে অস্ট্রেলিয়া ভ্রমণ এখন নিষিদ্ধ। কড়া নির্দেশ জারি করেছে সরকার। ওস্ট্রেলিয়ান ওপেনে অংশ নিতে হলে ভ্যাকসিন সার্টিফিকেট দেখানো বাধ্যতামূলক। আরও অনেক নিয়ম আছে। কিন্তু সেসবের তোয়াক্কা করেননি টেনিস তারকা। ভ্যাকসিন নিতেও অনীহা ছিল তাঁর। এমনকি জকোভিচ তাঁর করোনা সংক্রমিত হওয়ার খবর গোপন করে অস্ট্রেলিয়ায় এসেছেন এমন খবর সামনে আসে। এই নিয়ে মামলা আদালত অবধি গডা়য়।

জকোভিচের আইনজীবীদের পক্ষ থেকে আদালতে বলা হয়েছে, গত মাসে করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন টেনিস তারকা। এরপরে অবশ্য তিনি সংক্রমণের লক্ষণগুলি অনুভব করেননি। টিকা দেওয়ার নিয়ম থেকে তাঁকে ছাড়ও দেওয়া হয়েছিল বলে দাবি করেন তাঁরা। এরপর অস্ট্রেলিয়ায় ভ্রমণের আগে অস্ট্রেলিয়ান ইমিগ্রেশন বিভাগ থেকে লিখিত অনুমোদন পেয়েছিলেন। নথিতে উল্লেখ আছে, ২০২১ সালের ১৬ ডিসেম্বর প্রথম পিসিআর পরীক্ষায় করোনা পজিটিভ ছিলেন জকোভিচ। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন টেনিস তারকার আইনজীবী জানিয়েছেন, করোনা পজিটিভ রিপোর্টের কারণেই মেডিকেল ছাড়পত্র পেয়েছিলেন জকোভিচ।

জোকার একান্ত অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে অংশ নিতে না পারলে তিনি শীর্ষস্থানও হারাবেন। সেক্ষেত্রে রাশিয়ার মেদভেদেদ দুই থেকে একনম্বরে চলে যাবেন। আজ ভিসা বাতিল হয়ে যাওয়ায় সে সম্ভাবনাই প্রবল হচ্ছে।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকাসুখপাঠ

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.