ইস্টবেঙ্গলের ইনভেস্টর কর্তাদের উদাসীনতায় পেরোসেভিচের শাস্তি কমল না

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ইস্টবেঙ্গলের বিনিয়োগকারী সংস্থার আধিকারিকদের উদাসীনতায় দলের এক বিদেশী ফুটবলারের শাস্তি বহালই থাকছে। ফেডারেশন জানিয়ে দিয়েছে, আন্তোনিও পেরোসেভিচের পাঁচ ম্যাচ নির্বাসনের শাস্তি কমছে না। এক লক্ষ টাকা জরিমানাও দিতে হবে তাঁকে, না দিলে আরও এক ম্যাচ নির্বাসন বাড়বে।

লাল হলুদ কর্তারাই ওই বিদেশীর শাস্তি কমানোর আবেদন করেছিলেন। কিন্তু বিনিয়োগকারী সংস্থা শ্রী সিমেন্টের কর্তা ব্যক্তিরা বিষয়টি লঘু করে নিয়েছিলেন, যে কারণে শাস্তি কমছে না।

ফেডারেশন কর্তারা সোমবার সন্ধ্যে ৭-৩০টার সময় ভার্চুয়াল আপিল কমিটির মিটিং ডেকেছিলেন। কিন্তু ইস্টবেঙ্গলের সিইও শিবাজী সমাদ্দার ওই মিটিংয়ে যোগ দেননি। তাঁকে ফোন করা হয়েছিল মিটিংয়ে যোগ দেওয়ার জন্য, তিনি ফোনই ধরেননি। বরং ৪৫ মিনিট অতিবাহিত হওয়ার পরে যোগাযোগ করে তাঁকে লিঙ্ক পাঠাতে বলেন। সেইসময় এআইএফএফ কর্তারা বলে দেন, তাঁর জন্য ৪৫ মিনিট অপেক্ষা করা হয়েছে, তাঁরা আর মিটিং চালাবেন না।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত ১৭ ডিসেম্বর নর্থ-ইস্ট দলের বিরুদ্ধে ০-২ গোলে হেরেছিল এসসি ইস্টবেঙ্গল। সেই ম‍্যাচে অসুন্তুষ্ট হয়ে রেফারিকে ধাক্কা মারেন পেরোসোভিচ। সঙ্গে সঙ্গে ক্রোয়েশিয়ার এই ফরোয়ার্ডকে লাল কার্ড দেখান রেফারি। পরে পেরোসোভিচকে পাঁচ ম‍্যাচ নির্বাসনে পাঠায় শৃঙ্খলারক্ষা কমিটি।

তার পরেই পেরোসোভিচের শাস্তি কমানোর জন‍্য অ‍্যাপিল কমিটির কাছে আবেদন করেন এসসি ইস্টবেঙ্গল কর্তারা। প্রসঙ্গত, এবারের লাল-হলুদ শিবিরে বিদেশিদের মধ‍্যে একমাত্র ভরসা জুগিয়েছিলেন ক্রোয়েশিয়ার পেরোসোভিচ। অথচ দলের গুরুত্বপূর্ণ এই ফুটবলারকে নির্বাসন থেকে বাঁচানোর জন‍্য শেষ পযর্ন্ত পাশেই থাকলেন না এসসি ইস্টবেঙ্গলের সিইও শিবাজি সমাদ্দার ও অন‍্যতম কর্তা শ্রেনিক শেঠ।

অফিশিয়াল মেইলের মাধ্যমে ফেডারেশনের আপিল কমিটির পক্ষ থেকে অনেক আগেই সেই লিঙ্ক পাঠানো হয়েছিল। চুড়ান্ত অপেশাদার ইস্টবেঙ্গল কর্তৃপক্ষ সেই লিঙ্ক খুলে দেখার প্রয়োজন মনে করেনি।

সভায় উপস্থিত থাকা ফেডারেশনের সৌরভ কৃপাল,  স্যাভিও মেসিয়াস,  তমাল মুখোপাধ্যায়রা বিরক্তিপ্রকাশ করেন। কী করে এত বড় ক্লাবের কর্তারা অপেশাদারিত্ব দেখালেন, সেই নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.