রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে তিরে এসে তরী ডুবল কিংসের, জয়ী রাজস্থান

দ্য ওয়াল ব্যুরো: একেবারে ম্যাচের শেষে এসে জয়ী রাজস্থান রয়্যালস (Rajasthan Royals)। প্রীতি জিন্টার দল পারল না শেষরক্ষা করতে। প্রথমে ব্যাটিং নিয়ে রাজস্থান করেছিল ১৮৫ রান। বিনিময়ে পাঞ্জাব কিংস (Punjab Kings) শেষ করেছে ১৮৩/৪।

শেষ ওভারে (Over) এসেও কেউ ভাবতে পারেনি ম্যাচটি হেরে যেতে পারে লোকেশ রাহুলের পাঞ্জাব। তারা ২০ ওভারে শেষমেশ দুই রান আগে থেমে গিয়েছে। এই আক্ষেপ তাদের যাবে না।

একটা জেতা ম্যাচকে তারা মাঠে ফেলে এসেছে। শেষদিকে ব্যাটিং করছিলেন আইডেন মার্কাম ও ফ্যাভিয়েন অ্যালেন। কার্তিক ত্যাগীর শেষ ওভারেই বাজিমাত রাজস্থানের।

এই ম্যাচ সঞ্জু স্যামসনের রাজস্থান জিততে পারে ভাবা যায়নি। কারণ তাদের ব্যাটিং শুরুতে ভাল ছিল না, তারা দুই ওপেনারের দৌলতে রান তুলতে পেরেছিল। না হলে বাকিরা ব্যর্থ। বরং পাঞ্জাবের বোলাররা নিজেদের কাজটির করায় রাজস্থানের ব্যাটসম্যানদের কাজ কঠিন হয়ে গিয়েছিল।

আরও পড়ুন: দৃষ্টিশক্তি ঝাপসা হয়ে আসছে, ফুটবল নিয়ে কথা বলতে এখনও অনিহা বলরামের

কিন্তু সেই একইভাবে রাজস্থানের বোলাররা শেষ রাতে বাজিমাত করে দেবে, ভাবা যায়নি। অখ্যাত বোলার কার্তিক ত্যাগীর বলে শেষ ওভারে কেঁপে গিয়েছে কিংসের দুই ব্যাটসম্যান। শেষমেশ ঈশানের দল হেরে গিয়েছে। বাংলার এই পেসার বল হাতে এক উইকেট নিলেও ম্যাচটি হেরে যাওয়ায় সবটাই বৃথা গেল।

এদিকে, নিজেদের প্রথম ম্যাচে রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে মাঠে নামে লোকেশ রাহুলের পাঞ্জাব কিংস। ঘটনাক্রমে এদিনই আবার ‘ইউনিভার্স বস’ ক্রিস গেইলের ৪২তম জন্মদিন ছিল। তবে এদিন পাঞ্জাবের দলে সুযোগ পাননি তিনি। রাহুলের দলের এই সিদ্ধান্তে হতবাক কেভিন পিটারসেন ও সুনীল গাভাসকার।

তাঁর জন্মদিনে গেইলকে দলে না নেওয়ায় ক্ষুব্ধ পিটারসেন। তিনি বলেন, ‘‘আমি বুঝতে পারছি না ঠিক কী কারণে গেইলকে ওঁর জন্মদিনে বাদ দেওয়া হল। যদি গেইলকে একটাই ম্যাচে খেলানো হয়, তাহলে সেটা এই ম্যাচটাই হওয়া উচিত ছিল। ও যদি ম্যাচে ব্যর্থ হত, তাহলে না হয় ওঁকে কিছুদিন বিশ্রাম নেওয়ার জন্য বলা যেত। এই সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন ওঠাটাই স্বাভাবিক।’’

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More