‘সৌরভ ক্যাপ্টেন্সি ছাড়তে চায়নি নিয়ন্ত্রন চলে যাবে বলে’, ফের পুরনো কাসুন্দি ঘাঁটলেন গুরু গ্রেগ

1

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ফের পুরনো কাসুন্দি ঘাঁটতে শুরু করলেন গ্রেগ চ্যাপেল। তিনি এমনিতেই খবরে নেই, সেই কারণে সবসময় চান এমন কোনও বক্তব্য রাখতে যাতে তাঁকে নিয়ে আলোচনা হয়। আর সেটি উনি ভাল জানেন, তাই ফের সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে আক্রমণ করলেন অস্ট্রেলীয় নামী প্রাক্তন তারকা।

তিনি অস্ট্রেলিয়ার এক নামী ওয়েবসাইটে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে জানিয়েছেন, ‘‘হ্যাঁ, আমি সৌরভের ডাকেই ভারতে কোচিং করতে গিয়েছিলাম। ভেবেছিলাম আমি কোচিং করাব অস্ট্রেলিয়া জাতীয় দলের। তারপর জন বুকানন জাতীয় দলের কোচ হতে আমি সাগ্রহে রাজি হয়ে যাই ভারতে যাওয়ার।’’

গ্রেগ এতদিন পরে ফের বলেছেন, “সৌরভই আমাকে প্রথম কোচিং করানোর কথা বলে। অন্য প্রস্তাব থাকলেও আমি ভারতকে বেছে নিয়েছিলাম সেইসময়। কারণ ক্রিকেট পাগল এই দেশকে কোচিং করানোর সুযোগ ছাড়তে পারিনি। প্রথম দু’বছর খুবই কঠিন ছিল, সবাই খুব প্রত্যাশা করত দলকে নিয়ে। সৌরভকে অধিনায়ক রাখা নিয়েও সমস্যা তৈরি হয়েছিল। বেশি পরিশ্রম একদমই করতে চাইত না সৌরভ।’’

তারপরেই চ্যাপেল বিতর্কিতভাবে মহারাজকে আক্রমণে করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, ‘‘সৌরভের ক্রিকেটে উন্নতির বিষয়ে কোনও মনও ছিল না, শুধু চাইত দলে অধিনায়কত্ব করতে, কারণ ও জানত, দলের ক্যাপ্টেন্সি চলে গেলে ওর আর নিয়ন্ত্রন থাকবে না। তাই আমাকেও অনেক কথা শুনিয়েছে।’’

ভারতের বিতর্কিত এই প্রাক্তন বিদেশী কোচ বলেছেন, “ভারতকে বিশ্বের সেরা দল বানাতে চেয়েছিল রাহুল দ্রাবিড়, ওর ভাবনা ছিল সদর্থক। কিন্তু দলের বাকিদের মধ্যে আমি সেটা দেখতে পাইনি। দলে কী ভাবে টিকে থাকবে, শুধু সেটাই ভাবত ওরা। নতুনদের নেওয়ার ব্যাপারে দলের অভিজ্ঞ খেলোয়াড়রা মাঝেমধ্যে প্রতিবাদ জানাত। কারণ ওরা জানত ওদের দিন শেষ হয়ে আসছে। সৌরভকে বাদ দেওয়ার সময় অনেকে চিন্তায় পড়ে গিয়েছিল। ওরা বুঝতে পেরেছিল যে সৌরভকে বাদ দেওয়া হয়েছে, এবার আমাদেরও সরতে হবে।’’

চ্যাপেল শেষ না করে আরও বলেছেন, ‘‘তারপর প্রায় একবছর ঠিকঠাকই চলছিল। কিন্তু সৌরভ ফের দলে আসতেই একের পর এক ক্রিকেটার আমাকে এসে জানায়, সৌরভের তো ফেরার কথা ছিল না, ও ফিরল কী করে! এই নিয়ে দলের অন্দরে নানা সমস্যা তৈরি হয়েছিল। আমারও কোচিং করাতে আর ভাল লাগছিল না। তাই বিসিসিআই আমার চুক্তির পুনর্নবিকরণ করাতে চাইলেও আমি আর রাজি হইনি।’’

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.