কিশোরী ধর্ষণ মামলা থেকে অব্যাহতি পেলেন পাকিস্তান স্পিনার ইয়াসির

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পাকিস্তান ক্রিকেটে শুরু হয়ে গিয়েছিল প্রবল বিতর্ক। বোর্ডের চেয়ারম্যান রামিজ রাজা জানিয়েছিলেন, ইয়াসির শাহের ঘটনা যদি সত্যি হয়, তা হলে সবরকম ব্যবস্থা নেবে পাক বোর্ড। এটি পাক ক্রিকেটের পক্ষে বড় লজ্জা।

১৪ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণ ও ভিডিও করার অভিযোগ থেকে মুক্ত হলেন পাক স্পিনার। টানা তদন্তের পর পুলিশই ইয়াসিরের নাম বাতিল করে দেন চার্জশিট থেকে।

পুলিশের পক্ষ থেকে ইয়াসির শাহকে নির্দোষ দাবি করা হয়েছে। ইসলামাবাদ শালিমার পুলিশের কাছে করা ১৪ বছরের কিশোরির এফআইআরে নাম ছিল ইয়াসিরের।

গত ১৯ ডিসেম্বর ইয়াসির এবং তাঁর বন্ধু ফারহানকে অভিযুক্ত করে এফআইআর দায়ের করেন জনৈক কিশোরী। ফারহানের বিপক্ষে সরাসরি ধর্ষণ ও ভিডিও ধারনের অভিযোগ আনা হয়। যেখানে ইয়াসির শাহকে অভিযুক্ত করা হয় মূলতঃ সহায়তাকারী হিসেবে।

ইসলামাবাদের শালিমার থানার পুলিশ জানিয়েছে, তদন্তের সময় সেই কিশোরীর বক্তব্যেই স্পষ্ট হয়েছে যে, এফআইআরে ভুলবশত ইয়াসিরের নাম তারা বলে দিয়েছিল। কিন্তু তদন্তে আমরা জানতে পেরেছি ওই ঘটনার সময় ইয়াসির দেশেই ছিলেন না। তিনি এই বিষয়টি জানতেনও না।

ওই কিশোরীর এক আত্মীয়াই পাক ক্রিকেটারের নামে অভিযোগ করেন। তবে কেন আচমকা ইয়াসিরের নাম বলা হল, সেটিও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পাকিস্তানি দণ্ডবিধির ২৯২-বি ও ২৯২-সি ও ৩৭৬ ধারায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলাটি সাজানো হয়েছিল।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.