ইয়াসের ক্ষতিপূরণ বাবদ ২১ হাজার কোটি টাকা কেন্দ্রের কাছে চাইল নবান্ন, আপাতত পেয়েছে আড়াইশ কোটি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের কারণে বাংলায় কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা পর্যালোচনা করতে গত কয়েকদিন ধরে কেন্দ্রীয় সরকারের টিম ঘুরছে রাজ্যে। বুধবার সেই প্রতিনিধি দল নবান্নে গিয়ে মুখ্য সচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদীর সঙ্গে বৈঠক করেন। সূত্রের খবর, মুখ্য সচিব সেই আলোচনার সময়ে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দলকে জানিয়েছেন যে রাজ্য ক্ষতিপূরণ বাবদ মোটামুটি ভাবে ২১ হাজার কোটি টাকা প্রত্যাশা করছে। তবে সবিস্তার ক্ষয়ক্ষতির হিসাব কেন্দ্রের হাতে এক সপ্তাহের মধ্যে তুলে দেওয়া হবে।

আমফানের পরেও রাজ্য প্রায় ২০ হাজার কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করেছিল। কিন্তু সেবার প্রাথমিক ভাবে ১ হাজার কোটি টাকায় দেয়। পরে আরও ২৭০৮ কোটি দেয় কেন্দ্রীয় সরকার।

অর্থাৎ ক্ষয়ক্ষতির অঙ্ক নিয়ে রাজ্যের হিসাব ও কেন্দ্রের সমীক্ষার মধ্যে বিস্তর ফারাক যে রয়েছে তা স্পষ্ট হয়ে যায়। তুলনায় এ বার ইয়াসের ঘূর্ণিঝড়ের পর জরুরি ভিত্তিতে মাত্র ২৫০ কোটি টাকা দিয়েছে কেন্দ্র। তার পর কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল বাংলায় পর্যবেক্ষণে এসেছে।

প্রশাসনিক সূত্রের মতে, মূলত দক্ষিণ ২৪ পরগনা ও পূর্ব মেদিনীপুরে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ সবচেয়ে বেশি। এই দুই জেলায় নদী বাঁধ ভেঙে তছনছ হয়ে গেছে। তা ছাড়া সুন্দরবনে একের পর এক নোনা জল ঢুকে গিয়ে মানুষের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে। এটা বাস্তব যে রাজ্যের যা আর্থিক সঙ্গতি তাতে একার পক্ষে ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা খুবই চাপের। এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সাহায্য যত দ্রুত পাওয়া যাবে ততই ভাল।

Leave a comment

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More