বিভেদ ভোলাতে সায়ন্তন বসুর চা চক্রে পাশাপাশি জলপাইগুড়ির প্রাক্তন ও বর্তমান দুই জেলা সভাপতি

দীপেন প্রামানিকের শিবির সাংবাদিক সম্মেলন করে দাবি করেন, ‘‘বাপী গোস্বামী কাজের লোকের বদলে কাছের লোক দিয়ে দল চালাচ্ছে। যদি এভাবে দল চলে তবে জেলার সবকটি বিধানসভা আসনে বিজেপির হার নিশ্চিত।’’সংবাদ মাধ্যমে এই খবর আসার পর রাজ্য নেতৃত্ব নড়েচড়ে বসে।

দ্য ওয়াল ব্যুরো, জলপাইগুড়ি: চা চক্রে যুযুধান দুই জেলা সভাপতিকে পাশাপাশি বসালেন সায়ন্তন বসু।

জলপাইগুড়ি জেলায় বিজেপির প্রাক্তন জেলা সভাপতি দীপেন প্রামানিক এবং বর্তমান জেলা সভাপতি বাপী গোস্বামীর মধ্যে সম্পর্ক যে আদায় কাঁচকলায় তা দিনের আলোর মতোই স্পষ্ট। সম্প্রতি বিজয়া সম্মেলনীর অনুষ্ঠানে তা আরও বেশি করে সবার নজরে আসে। একই দিনে দুই শিবির আলাদা করে বিজয়া সম্মেলন করে। দীপেন প্রামানিকের শিবির সাংবাদিক সম্মেলন করে দাবি করেন, ‘‘বাপী গোস্বামী কাজের লোকের বদলে কাছের লোক দিয়ে দল চালাচ্ছে। যদি এভাবে দল চলে তবে জেলার সবকটি বিধানসভা আসনে বিজেপির হার নিশ্চিত।’’

সংবাদ মাধ্যমে এই খবর আসার পর রাজ্য নেতৃত্ব নড়েচড়ে বসে। বৃহস্পতিবার সকালে জলপাইগুড়ি শহরের পান্ডাপাড়া বউবাজারে বিজেপির প্রাক্তন জেলা সভাপতি দীপেন প্রামাণিক ও বর্তমান বিজেপি সভাপতি বাপী গোস্বামীকে পাশাপাশি  নিয়ে চা চক্র সারলেন বিজেপির রাজ্য নেতা সায়ন্তন বসু। দুই শিবিরের প্রিয় নেতা সমেত সায়ন্তন বসুকে কাছে পেতে সাতসকালে বউবাজারে তখন ভিড় জমে যায় দলের নেতা কর্মীদের।

সায়ন্তন বসু বলেন, ‘‘ সব নেতা কর্মীরা একসঙ্গে চা খেতে খেতে আড্ডা মারলাম। গত লোকসভা নির্বাচনে এই জেলায় বিজেপি সাতটির মধ্যে ছটি বিধানসভা কেন্দ্রেই জয়ী হয়েছিল। এরমধ্যে পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেবের বিধানসভা জয় ছিল উল্লেখযোগ্য। এই নির্বাচনের ফলাফলই প্রমাণ করে দেয় আগামী বিধানসভা নির্বাচনে জয়লাভ করবে বিজেপি।’’

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More