ক্যানিংয়ের ঘুমরি বাজারে বোমাবাজি, আইএসএফ-তৃণমূল তুমুল সংঘর্ষ শাকশহরে

দ্য ওয়াল ব্যুরো, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: রাজ্যে তৃতীয় দফার ভোটগ্রহণ ঘিরে সকাল থেকেই বিক্ষিপ্ত অশান্তির খবর উঠে আসছে ক্যানিং মহকুমার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে।

ক্যানিংয়ের ঘুমরি বাজারে ভোটারদের ভয় দেখাতে আইএসএফের বিরুদ্ধে বোমাবাজির অভিযোগ করেছেন ক্যানিং পূর্বের তৃণমূল প্রার্থী শওকত মোল্লা। সকাল থেকে দফায় দফায় এই এলাকায় বোমাবাজি হয় বলে খবর। এর প্রতিবাদে অবস্থানে বসেন শওকত মোল্লা। ক্যানিং পূর্বের আইএসএফ প্রার্থী গাজী সাহাবুদ্দিন সিরাজিকে একাধিকবার চেষ্টা করেও ফোনে যোগাযোগ করা যায়নি।

ক্যানিংয়ে আইএসএফএর এক কর্মীকে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। তবে যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছেন স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে কালু গাজী নামে এক আইএসএফ কর্মী মঙ্গলবার সকালে স্থানীয় একটি চায়ের দোকানে চা খেতে গিয়েছিলেন। অভিযোগ সেখানে আচমকা তাকে ঘিরে ধরে তৃণমূলের কর্মী সমর্থকরা। বেধড়ক মারধর করে মাথা ফাটিয়ে দেওয়া হয়।  স্থানীয়রাই তড়িঘড়ি পুলিশে খবর দেন। কালু গাজিকে উদ্ধার করে স্থানীয় নলমুড়ি ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয় চিকিৎসার জন্য। সেখানে উত্তেজনা থাকায় বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

ক্যানিং পূর্বের শাকশহরে ৪৭ ও ৪৮ নম্বর ভোটে তৃণমূল ও আইএসএফ কর্মীদের তুমুল সংঘর্ষে জখম হন বেশ কয়েকজন তৃণমূল কর্মী সমর্থক। তাঁদের মধ্যে পাঁচজনকে নলমুড়ি ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।

ক্যানিং পূর্বের দুর্গাপুরে ১২৭ নম্বর বুথে আইএসএফ কর্মীদের এজেন্টদেরও বসতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। তা নিয়ে দুই দলের কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতি শুরু হয়ে যায়। ১২৭ নম্বর বুথে আবার আইএসএফ কর্মীদের ভোটকেন্দ্রে যেতে বাধা দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করে আইএসএফ। তা নিয়ে হাতাহাতির উপক্রম হওয়া মাত্রই ক্যুইক রেসপন্স টিম গিয়ে দু’পক্ষকে নিরস্ত করে।

অন্যদিকে ক্যানিং পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্রের তালদি গ্রাম পঞ্চায়েতের কুমড়োখালি এলাকার ৬৭ নম্বর বুথে ভোটযন্ত্রে ব্যাপক গরমিল ঘিরে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। সেখানে ইভিএম বিভ্রাটের অভিযোগ সামনে এসেছে। এলাকাবাসীদের দাবি, সকালে ভোট শুরু হওয়ার কিছু পরেই ভোটার সংখ্যার চেয়ে বেশি পরিমাণ ভোট পড়েছে বলে দেখানো হচ্ছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More