গৌতম দেবের কেন্দ্রে ভূমিপুত্রকে চেয়ে তৃণমূলের নামে পোস্টার, শোরগোল ডাবগ্রাম-ফুলবাড়িতে

২০১১-র ভোটে শিলিগুড়ি কেন্দ্রে জিতেছিলেন গৌতম দেব। কিন্তু ষোলর ভোটে তা আর নিরাপদ নয় বুঝে ডাবগ্রাম-ফুলবাড়িতে গৌতম দেবকে দাঁড় করায় তৃণমূল। সেবার সিপিএমের অশোক ভট্টাচার্য শিলিগুড়িতে জয়ী হন। তাঁর বিরুদ্ধে তৃণমূল প্রার্থী ছিলেন ফুটবলার বাইচুং ভুটিয়া।  

দ্য ওয়াল ব্যুরো, শিলিগুড়ি: তৃণমূল যখন বিজেপির বিরুদ্ধে বহিরাগত অস্ত্রে আক্রমণ শানাচ্ছে, তখন তৃণমূলের নেতা তথা রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রীকেই কিনা পড়তে হল বহিরাগত ক্ষোভের মুখে!

ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি কেন্দ্রে ভূমিপুত্রকে প্রার্থী করতে হবে, এমন পোস্টার নজরে আসায় বুধবার সকালে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়াল ওই এলাকায়। এই কেন্দ্রের বিধায়ক পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। উত্তরকন্যার উল্টোদিকে ও চুনাভাটি চা বাগানে এই পোস্টার নজরে আসে। পরে অবশ্য দু’টি পোস্টারই খুলে নেওয়া হয়।

তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা না হলেও তিন-চারদিন আগেই এই কেন্দ্রে প্রচার শুরু করে দিয়েছেন তিনি। যাচ্ছেন বাড়ি বাড়ি। শিলিগুড়ি শহরের বাসিন্দা গৌতম দেব। ডাবগ্রাম-ফুলবাড়িতে প্রার্থী হয়ে আগে তাঁকে লড়তে হয়েছে বহিরাগত তকমার বিরুদ্ধে। কিন্তু এবার প্রচার শুরু করে দিলেও তিনি এই কেন্দ্রে প্রার্থী হচ্ছেন কি তা এখনও নিশ্চিত নয়। তাই আচমকা এমন পোস্টার কেন পড়ল তা নিয়ে তৈরি হয়েছে গুঞ্জন।

সকাল সকাল এই পোস্টার নিয়ে তৃণমূল–বিজেপি টানাপড়েনও তুঙ্গে ওঠে। বিজেপির দাবি, এই পোস্টার লাগানোর পিছনে মন্ত্রীর নিজেরই হাত রয়েছে। তবে অভিযোগ অস্বীকার করে এর দায় বিজেপির উপর চাপিয়েছে তৃণমূলের ব্লক নেতৃত্ব। বিজেপির জলপাইগুড়ি জেলা সভাপতি বাপী গোস্বামীর বক্তব্য, গত লোকসভা ভোটের নিরিখে ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি কেন্দ্রে প্রায় ৮৪ হাজার ভোটে পিছিয়ে রয়েছে তৃণমূল। তাই হারের কেন্দ্রে দাঁড়িয়েই লড়াই শুরু করতে হবে মন্ত্রী গৌতম দেবকে। তিনি বলেন, “এত ভোটের ব্যবধান যে কমানো সম্ভব নয়, তা বিলক্ষণ জানেন গৌতমবাবু। তাই এই কেন্দ্র থেকে দাঁড়াতেই চাইছে না তিনি। ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ি কেন্দ্রে তিনি এমনিতেই বহিরাগত। তাই সেই তকমাকে এখন নিজের স্বার্থেই কাজে লাগাতে চাইছেন।”

ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ির ব্লক তৃণমূল সভাপতি দেবাশিস প্রামাণিকের পাল্টা বক্তব্য এ সবই বিজেপির ষড়যন্ত্র। তিনি বলেন, “এই কেন্দ্রে কে দাঁড়াবেন, তা এখনও ঠিক হয়নি। আমাদের দলনেত্রী যাঁকে প্রার্থী হিসেবে বাছাই করবেন তাঁর হয়ে লড়াইয়ের ময়দানে নামতে আমরা প্রস্তুত। এ সমস্ত গন্ডগোলের পরিস্থিতি তৈরি করছে বিজেপি। তাঁরাই চক্রান্ত করে এই পোস্টার লাগিয়েছে। তবে এতে তৃণমূলের কোনও ক্ষতি হবে না। মানুষ তৃণমূলের উপরেই আস্থা রাখবে।”

২০১১-র ভোটে শিলিগুড়ি কেন্দ্রে জিতেছিলেন গৌতম দেব। কিন্তু ষোলর ভোটে তা আর নিরাপদ নয় বুঝে ডাবগ্রাম-ফুলবাড়িতে গৌতম দেবকে দাঁড় করায় তৃণমূল। সেবার সিপিএমের অশোক ভট্টাচার্য শিলিগুড়িতে জয়ী হন। তাঁর বিরুদ্ধে তৃণমূল প্রার্থী ছিলেন ফুটবলার বাইচুং ভুটিয়া।

পোস্টার কাণ্ড নিয়ে ব্যাপারে মন্ত্রী গৌতম দেবের কোনও প্রতিক্রিয়া অবশ্য এখনও পাওয়া যায়নি। পাওয়া গেলে তা আপডেট করা হবে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More