হরিপালে অশান্তি, বিজেপি কর্মীদের মাথা ফাটানোর অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

দ্য ওয়াল ব্যুরো, হুগলি: সকাল থেকে শান্তিপূর্ণ ভোট চললেও বেলা বাড়তেই অশান্তি হরিপালে। হরিপাল বিধানসভার সিপাইগাছি প্রাথমিক স্কুলে ২২৮ নম্বর বুথে বিজেপি কর্মীদের মেরে মাথা ফাটানোর অভিযোগ উঠল তৃণমূলের কর্মী সমর্থকদের বিরুদ্ধে।

ঘটনার খবর পেয়ে সিপাইগাছি পৌঁছন বিজেপি প্রার্থী সমীরণ মিত্র। ভোটগ্রহণ কেন্দ্রের কাছে তৃণমূলের কর্মী সমর্থকদের দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে প্রতিবাদ জানান তিনি। এই নিয়ে বচসা বাঁধে তৃণমূলের সঙ্গে। শুরু হয় সংঘর্ষ। বাঁশ, লাঠি নিয়ে তৃণমূলের কর্মী সমর্থকরা বিজেপির উপর চড়াও হয় বলে অভিযোগ। মারধরে জখম হন ছয় সাতজন। মাথা ফাটে তিন জনের।

খবর পেয়ে পুলিশ আসতেই পালিয়ে যায় দু’পক্ষই। বিজেপি প্রার্থী সমীরণবাবু বলেন, “সকাল থেকেই সন্ত্রাসের আবহ তৈরি করেছে তৃণমূল। ওদের মারধরে জখম হয়েছে আমাদের বেশ কয়েকজন কর্মী। তবে এতে শেষরক্ষা হবে না।”

অন্যদিকে তৃণমূলের প্রার্থী করবী মান্না বলেন, “কোনও গন্ডগোলের খবর আমার জানা নেই। ভোট শান্তিপূর্ণভাবে চলছে।”

সিঙ্গুর জমি আন্দোলনের নেতা বেচারাম মান্নার কেন্দ্র হিসেবেই এতদিন পরিচিতি ছিল হরিপালের। এবার বেচারাম মান্না লড়াই করছেন সিঙ্গুর থেকে। হরিপালে তৃণমূল প্রার্থী করেছে তাঁর স্ত্রী করবী মান্নাকে। সিঙ্গুরে তাঁকে প্রার্থী না করে বেচারামকে ও হরিপালে বেচারামের স্ত্রী করবীকে প্রার্থী করায় ক্ষোভে ফেটে পড়েছিলেন জমি আন্দোলনের আরেক নেতা রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য। তৃণমূল ছেড়ে তিনি বিজেপিতে যোগ দেন। এবার সিঙ্গুর থেকে বিজেপির প্রার্থী হয়েছেন রবীন্দ্রনাথবাবু। বিতর্কের আবর্তে সিঙ্গুরের পাশাপাশি হরিপাল কেন্দ্রও এবার প্রথম থেকেই তাই নজরে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More