কলকাতায় চিন্তা বাড়াচ্ছে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস, আরও ৩ রোগীর খোঁজ মিলল শহরে

1

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মিউকরমাইকোসিস বা ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সংক্রমণ চিন্তা বাড়াচ্ছে এ রাজ্যেও। খাস কলকাতায় এদিন আরও তিন জনের শরীরে এই রোগের হদিশ মিলেছে। তিন জনেই বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জানা গেছে মিন্টো পার্কের কাছে এক হাসপাতালে কোভিড পরবর্তী অসুস্থতার জেরে ভর্তি হন এক ব্যক্তি। নানা উপসর্গ দেখে তাঁর পরীক্ষা করা হয়। জানা যায় ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত তিনি। এছাড়া আরও দু’জন রোগীর খোঁজ মিলেছে আলিপুরের একটি হাসপাতালে।

এদিন সকালে বাইপাসের ধারে এক বেসরকারি হাসপাতালেও মিলেছিল মিউকরমাইকোসিসের হদিশ। কোভিড থেকে সেরে ওঠার পর বেশ কিছু আনুসাঙ্গিক অসুস্থতা নিয়ে মধ্যবয়স্ক এক ব্যক্তি ফের হাসপাতালে ভর্তি হন। জানা যায় তিনিও আক্রান্ত ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে। তবে সুস্থতার পথেই রয়েছেন ওই রোগী। আগামীকাল তাঁকে বাড়ি যেতে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

মিউকরমাইকোসিসে ইতিমধ্যে রাজ্যের মোট ৭ জন আক্রান্তের খোঁজ পাওয়া গেছে। অনিশ্চয়তার পর্যায়ে রয়েছেন আরও ৮ জন। আদেও তাঁদের শরীরে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস বাসা বেঁধেছে কিনা তা খতিয়ে দেখা বাকি এখনও।

করোনা পরবর্তী এই রোগকে মহামারী ঘোষণা করেছে একাধিক রাজ্য। কেন্দ্রের তরফেও সেই মর্মে গাইডলাইন প্রকাশ করা হয়েছে। শহরে এখনও পর্যন্ত এই রোগে মৃত্যু হয়েছে এক জনের।

কেন্দ্রের তরফে রাজ্যগুলিকে পাঠানো হচ্ছে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের ওষুধ অ্যামফোটেরিসিন-বি। ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের একাধিক উপসর্গ নিয়ে এদিন সতর্ক করেছেন দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সের কর্ণধার রণদীপ গুলেরিয়া। তিনি বলেছেন, করোনা থেকে সেরে ওঠার পরও যদি দেখা যায় মাথা ব্যথা কমছে না, কিংবা মুখে ফোলা ভাব রয়েছে, নাক বন্ধ হয়ে যাচ্ছে, দাঁত আলগা হয়ে আসছে বা পড়ে যাচ্ছে, তবে তা ব্ল্যাক ফাঙ্গাস বা কালো ছত্রাকের লক্ষণ হতে পারে। দ্রুত চিকিৎসার প্রয়োজন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.