প্রয়াত অবনী রায়, দাবি করতেন বিশ বছর জল না খেয়ে ছিলেন তিনি

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দীর্ঘ রোগভোগের পর মারা গেলেন আরএসপি-র বর্ষীয়ান নেতা তথা প্রাক্তন রাজ্যসভা সাংসদ অবনী রায়। গত প্রায় ৫ বছরেরও বেশি সময় ধরে অসুস্থ ছিলেন অবনীবাবু।

২০১৬ সালের জুন মাসে তাঁর ব্রেন স্ট্রোক হয়েছিল। সেদিন দলের সাংসদ এন কে প্রেমচন্দ্রণের বাড়িতে ছিলেন তিনি। দিল্লির রাম মনোহর লোহিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল তাঁকে। পরে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে বেশ কিছুদিন ভেন্টিলেটরে রাখতে হয়েছিল অবনীবাবুকে। সেই থেকেই অবনীবাবু ভুগছেন। দিল্লিতেই তাঁর মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর।

রাজ্যসভায় তিনটি মেয়াদের সাংসদ ছিলেন অবনী রায়। দলের সেন্ট্রাল সেক্রেটারিয়েট মেম্বার ছিলেন তিনি। বামপন্থী সাংসদদের মধ্যে তাঁর মতো এতো হাসিখুশি খুব কমই ছিলেন। নয়াদিল্লির ফিরোজশাহ রোডে ছিল তাঁর সরকারি বাসভবন। বলতে গেলে আরএসপি পার্টিটা এক সময়ে সেখান থেকেই চলত।

আড্ডাপ্রিয় অবনীবাবু দাবি করতেন, তিনি নাকি বিশ বছর ধরে জলই খান না। যা শুনে সবাই বিস্ময় প্রকাশ করতেন। তখন তিনি বলতেন, সত্যিই জল খাই না। দিনে অন্তত বিশ বার চা খাই। লিকার চা। চিনি ছাড়া।

দিল্লিতে সাংবাদিক মহলে অবনীবাবু ছিলেন খুবই প্রিয় একজন মানুষ। সন্ধে হলে বাংলা সংবাদপত্রগুলির দফতরে গিয়েও বহু সময়ে আড্ডা দিতেন তিনি। আর প্রথম ইউপিএ জমানায়, বামেরা যখন কেন্দ্রে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন সরকারের সমর্থক দল, তখন অবনীবাবুর বৈঠকখানা গমগম করত। সকাল থেকে হানা দিতেন সাংবাদিকরা। বাম-কংগ্রেস সমন্বয় কমিটির বৈঠকে কী হল, প্রকাশ কারাটরা কী অবস্থান নিচ্ছেন, তার খোঁজপত্তর-ইঙ্গিতের অন্যতম উৎস্য ছিল অবনীবাবুর বাড়ি।

আজ বৃহস্পতিবার আরএসপি-র সংসদ অভিযান করার কথা। দলের সব শীর্ষ নেতা দিল্লিতেই রয়েছেন। অবনীবাবুর শেষকৃত্যে সামিল হবেন তাঁরা।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.