বিচারপতি-দলীয় রাজ্যসভা এমপি বৈঠক? শুভেন্দুর অভিযোগ নিয়ে মমতার জবাব চান মালব্য

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর চাঞ্চল্যকর দাবির ব্যাপারে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জবাব চাইল বিজেপি। শুভেন্দু গতকাল ট্যুইট করে বিস্ফোরক অভিযোগ তোলেন যে, কলকাতা হাইকোর্টের এক বিচারপতি সম্প্রতি দিল্লি সফর চলাকালে হাইকোর্টে তাঁর এজলাসে বিচারাধীন একটি বড় আর্থিক কেলেঙ্কারিতে প্রধান অভিযুক্তের হয়ে মামলা লড়া সিনিয়র আইনজীবীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন। শুভেন্দু এ ব্যাপারে ঠিক কী হয়েছে, জানতে চেয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে যে মন্তব্য করেন,তাতে বোঝাতে চাওয়া হয়েছে, এমন ঘটনায় বিচারবিভাগের নিরপেক্ষতা, স্বাধীনতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে। তিনি বলেন, গণতন্ত্রকে বাঁচাতে গেলে বিচার ব্যবস্থার স্বাধীনতার প্রশ্নে কোনও আপস করা চলে না।

শুভেন্দু সরাসরি কারও নাম না করলেও বিজেপির আইটি সেলের প্রধান তথা রাজ্যের সহ ইনচার্জ অমিত মালব্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে সরাসরি নিশানা করে বলেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বলতে হবে, তাঁর দলের পশ্চিমবঙ্গের এক রাজ্যসভা এমপি, যিনি সিনিয়র আইনজীবী এবং রাজ্যে নির্বাচনোত্তর হিংসা, অশান্তির মামলায় রাজ্য সরকারের পক্ষে লড়ছেন, একটি মেগা আর্থিক কেলেঙ্কারি মামলায় এক মুখ্য অভিযুক্তেরও আইনজীবী,  সত্যিই গত শনিবার দিল্লিতে কলকাতা হাইকোর্টের এক বর্তমান বিচারপতির সঙ্গে দেখা করেছেন কিনা।

শুভেন্দু তাঁর ট্যুইটে সেই বিচারপতির নাম জানাননি। তবে তাঁর ট্যুইট ঘিরে শোরগোল শুরু হয়েছে। কে সেই বিচারপতি, মামলাটিই বা কী, শুরু হয়েছে জল্পনা।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি শুভেন্দুর দিল্লিতে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতার বাড়ি যাওয়া নিয়ে ব্যাপক জলঘোলা হয়। বিনা অ্যাপয়েন্টমেন্টে কেন শুভেন্দু সেখানে গেলেন, প্রশ্ন ওঠে। বিজেপির তরফে এতে কোনও বিতর্ক, দুর্নীতির বিষয় নেই বলে দাবি করা হয়। মেহতাও পরে সাফ জানিয়ে দেন, শুভেন্দু তাঁর বাসভবনে এলেও তিনি অন্য বৈঠকে ব্যস্ত ছিলেন, সময় দিতে পারেননি। শুভেন্দুকে সেকথা জানিয়ে দেওয়া হয়। তিনিও কিছুক্ষণ সেখানে অপেক্ষা করে চলে যান। তবে বিরোধীরা সরব হয় এ নিয়ে। সলিসিটার জেনারেল পদ থেকে মেহতার অপসারণ চেয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লেখে তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। চিঠিতে স্বাক্ষর ছিল সাংসদ সুখেন্দুশেখর রায়, ডেরেক ও’ব্রায়েন এবং মহুয়া মৈত্রের। প্রসঙ্গত, মেহতা নারদ মামলায় সিবিআই পক্ষের আইনজীবী। সেই মামলায় শুভেন্দু অন্যতম অভিযুক্ত। এর জেরেই শুরু হয়েছিল বিতর্ক।

এবার কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সঙ্গে দিল্লিতে আইনজীবীর সাক্ষাৎ নিয়ে প্রশ্ন তুললেন শুভেন্দু। টুইটে তাঁর বক্তব্য, এমন সাক্ষাৎ নিয়ে একটি রিপোর্টের কথা শোনা যাচ্ছে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.