রবিবার বিকেলে হঠাৎই নবান্নে সস্ত্রীক মুখ্যসচিব, দিল্লি নোটিস প্রত্যাহার করল কিনা এখনও স্পষ্ট নয়

1

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিল্লিতে পোস্টিংয়ে যে নোটিস পাঠিয়েছিল দিল্লি তা প্রত্যাহার করে নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই আবেদনে এখনও সাড়া দেয়নি দিল্লি। কেন্দ্রে কর্মিবর্গ দফতরের নির্দেশ, সোমবার সকাল ১০টার মধ্যে নর্থ ব্লকে রিপোর্ট করতে হবে আলাপনবাবুকে। তার আগে আজ, রবিবার ছুটির দিন বিকেলে হঠাৎই স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে নবান্নে পৌঁছে যান মুখ্যসচিব।

বিকেল ৫টা নাগাদ আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর দফতরে পৌঁছন। কী জন্য তিনি গিয়েছেন, কী করেছেন, কোনও সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কিনা তা অবশ্য মুখ্যসচিব বা রাজ্য সরকার এখনও কিছু জানায়নি।

এই অবস্থায় নানান রকম তত্ত্ব ও জল্পনা এখন নবান্নের অন্দরমহলে ঘুরপাক খাচ্ছে। রাজ্য রাজনীতিকেও সেই সব জল্পনা আন্দোলিত করে রেখেছে। অনেকের মতে, এই সব ব্যাপারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একেবারেই আপসহীন। সমস্যা শুধু একটাই, তা হল, দীর্ঘ চাকরি জীবনের একেবারে শেষ মুহূর্তে এসে জটিলতার মধ্যে পড়েছেন আলাপনবাবু। এই জটিলতার শান্তিপূর্ণ সমাধান না হলে তাঁর অবসরকালীন সুবিধা, পেনশন ইত্যাদিতে প্রভাব পড়তে পারে।

তৃণমূলের একটি সূত্রের মতে, কেন্দ্র যাই করুক, আপাতত এটা স্পষ্ট যে আলাপনবাবু যদি অবসরও নেন তা হলেও মুখ্যমন্ত্রী এর পর তাঁকে কোনও বিশেষ দায়িত্ব ও পদ দিয়ে প্রশাসনিক কাজে ব্যবহার করতে চাইবেন। ইতিমধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, দিঘা উন্নয়ন বোর্ডের কাজ দেখবেন আলাপনবাবু।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.