ইয়াস মোকাবিলায় বাংলাকে কম টাকা কেন, অমিত শাহকে প্রশ্ন মমতার

1

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ঘূর্ণিঝড় ইয়াস মোকাবিলার প্রস্তুতি নিয়ে বাংলা, ওড়িশা ও অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে সোমবার বৈঠক করছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। সেই বৈঠকে বাংলার প্রতি আর্থিক বৈষম্য নিয়ে তিনি সরব হয়েছেন বলে এদিন সাংবাদিক বৈঠকে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর মন্ত্রিসভার বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। তারপর সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, ইয়াস মোকাবিলায় কেন্দ্রীয় সরকার অন্ধ্রপ্রদেশ এবং ওড়িশাকে অগ্রিম ৬০০ কোটি টাকা করে দেবে। আর বাংলাকে দেবে ৪০০ কোটি টাকা। এ তো বৈষম্য।

মমতা এদিন বলেন, “ওড়িশা এবং অন্ধ্রকে ৬০০ কোটি টাকা দিচ্ছে আমার কোনও সমস্যা নেই। তারা আমার সিস্টার স্টেট। কিন্তু বাংলার ক্ষেত্রে কেন বঞ্চনা হবে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠকে আমি এই প্রশ্ন তুলেছি।”

মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, অমিত শাহ তাঁকে বলেছেন, “মমতাজি, এটা নিয়ে আমরা পরে কথা বলব।” মমতা আরও বলেন, “কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, সায়েন্স মেনেই এই বরাদ্দ করা হয়েছে। কিন্তু আমি তো সায়েন্সের ব্যাপারে কিছু বিশেষ জানি না। পলিটিক্যাল সায়েন্সের ব্যাপারে অল্প বিস্তর জানি!”

মমতা এদিন ক্ষোভের সঙ্গে বলেন, যখন বলা হচ্ছে এই ঘূর্ণিঝড় মারাত্মক ক্ষয়ক্ষতি করবে তখন এটা কেন হবে? আর অগ্রিম টাকা দেওয়া মানে আমাদের টাকা আমাদের দেওয়া। যে টাকা কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্য থেকে তুলে নিয়ে যায় প্রতিবছর সেটা থেকেই দিচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য, আমফানের সময়েও অনেক কিছু দেবে বলে দেয়নি।

এদিন মূলত ইয়াস মোকাবিলায় রাজ্যগুলির প্রস্তুতি পর্যালোচনা করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। কত মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে, ঘূর্ণিঝড় হয়ে যাওয়ার পর যে অভিঘাত তৈরি হবে তা সামলানোর জন্য রাজ্যগুলি কী কী ব্যবস্থা নিচ্ছে—এসব নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হবে বলে জানা গিয়েছে। বিদ্যুৎ ও টেলিকম দফতরের আধিকারিকরাও যোগ দিয়েছেন বৈঠকে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.