শুভেন্দু-দিলীপদের হাতে পেন্সিল! মমতার নেমন্তন্ন মোদীকে

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বুধবার দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। তারপর দিদি জানিয়েছেন, এপ্রিলে কলকাতায় যে বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলন হবে সেখানে মোদীকে আমন্ত্রণ করেছেন তিনি। এবং প্রধানমন্ত্রী তা গ্রহণও করেছেন। আপাত ভাবে এই ঘোষণা নিরীহ। যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোয় কোনও অঙ্গরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীকে নিমন্ত্রণ করবেন, সেটাই দস্তুর। কিন্তু অনেকে মনে করছেন, মোদীকে নেমন্তন্ন করে আসলে বাংলার রাজনীতিতে অন্তত মাস্টারস্ট্রোক দিয়েছেন মমতা।

পর্যবেক্ষকদের অনেকের মতে, এদিনের বৈঠক দেখে কারও কারও এ ধারণা দৃঢ় হয়েছে যে মোদী-দিদি বোঝাপড়া হয়ে গিয়েছে। অবধারিত ভাবেই এর প্রভাব পড়তে পারে রাজ্য বিজেপির মনোবলে। আর মমতার নিমন্ত্রণে সত্যিই যদি প্রধানমন্ত্রী কলকাতায় আসেন, তা হলে দিলীপ-শুভেন্দুদের সংকট আরও বেশি। কারণ রাজ্যস্তরে সরকার বিরোধিতার যে রাজনীতিতে শান দিচ্ছেন তাঁরা, তা ভোঁতা হয়ে যেতে পারে এতে।

ত্রিপুরায় তৃণমূল আসলে কোচবিহারে ওয়াইসির হোর্ডিংয়ের মতো

এমনিতেই বঙ্গ বিজেপির মধ্যে অসন্তোষের বাতাবরণ রয়েছে। একে তো হারের ধাক্কা। তার উপর অনেক নেতাই ঘরোয়া আলোচনায় স্বীকার করে নিয়েছেন, যে গতিতে কেন্দ্রীয় এজেন্সি দুর্নীতির তদন্তে নেমেছিল তারা আবার শীতঘুমে চলে গিয়েছে। যার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের গা ছাড়া মনোভাবকেই কাঠগড়ায় তুলছেন তাঁরা। তাছাড়া, আদালতের নির্দেশে ভোট পরবর্তী হিংসার তদন্তে সিবিআই যে ভাবে দৌত্য শিরু করেছিল তাও অনেকটা মিইয়ে গেছে। সেই তেজ আর দেখা যাচ্ছে না বলেও মুরলীধর সেন লেনের অনেক নেতার দাবি। যে কারণে জেলায় জেলায় কর্মীদের মধ্যেও ক্ষোভ রয়েছে বিস্তর।

সংগঠনের এই ছন্নছাড়া অবস্থার মধ্যে যদি মমতার পাশে মোদীর হাসি মুখের ফ্রেম তৈরি হয় তা রাজ্য বিজেপির জন্য খুব একটা সুখকর হবে না বলেই মত অনেকের। তাঁরা মনে করছেন, মমতার এই আমন্ত্রণ এবং মোদীর তা গ্রহণ করা বাংলা বিজেপিকে ছুঁচোগেলার অবস্থায় ফেলে দিয়েছে। মোদী কলকাতায় না এলে মমতার রাজনৈতিক প্রচারের হাতিয়ার হবে। আর মোদী এলে বিজেপি অস্বস্তিতে পড়বে। তখন শুভেন্দুদের হাতে পেন্সিল ছাড়া কিছুই থাকবে না।

এ নিয়ে এদিন তৃণমূল, বিজেপি দুজনকেই কটাক্ষ করেছেন লোকসভায় কংগ্রেস নেতা অধীর চৌধুরী। তাঁর কথায়, “রাজায় রাজায় সন্ধি হল, বেকুব বনল জনতা”।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকাসুখপাঠ

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.