মাঝ নদীতে জেলে নৌকায় লুঠপাট চালাল দুষ্কৃতীরা

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: নদীতে মাছ ধরার জন্য আগে টাকা দিতে হল ফেরি ঘাট মালিককে,এ বার থেকে দিতে হবে স্থানীয় তৃণমূল নেতাকে। এমনই ফরমান জারি হয়েছিল জেলেদের উপর। সেই তোলা দিতে রাজি না হওয়ায় মাঝ নদীতেই জেলেদর উপর হামলা করে লুঠপাট চালায় দুষ্কৃতীরা। অভিযোগের তীর স্থানীয় তৃণমূল নেতা শেখ সাইফুদ্দিন-এর বিরুদ্ধে। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

মানিকচকের ডোমহাট, রুস্তমপুর,সোনাপুর এলাকায় গঙ্গা নদীতে মাছ ধরে দিন যাপন করেন স্থানীয় শতাধিক জেলে পরিবার। নদীতে মাছ ধরা বাবদ প্রতি বছর ফেরি ঘাট মালিককে ৫০০-৮০০ টাকা দিতে হতো জেলেদের। দীর্ঘ সময় ধরেই সেই টাকা দিয়ে আসছেন জেলেরা। সম্প্রতি গন্ডগোল শুরু করেন গোপালপুর এলাকার বাসিন্দা শেখ সাইফুদ্দিন। এলাকায় তৃণমূলের নেতা হিসেবেই পরিচিতি রয়েছে তাঁর।

জেলেরা জানিয়েছেন, ওই নেতা তাঁদের বলেন যে নদীতে মাছ ধরতে হলে ২০ শতাংশ তোলা দিতে হবে। কিন্তু, সেটা দিতে রাজি ছিলেন না জেলেরা। অভিযোগ, রবিবার সকালে নদীতে মাছ ধরতে যায় ৩০-৪০ জন জেলের একটি দল। সেই সময় মাঝ নদীতে ১২ জন জেলেকে ঘিরে ধরে দুষ্কৃতীরা। প্রত্যেকের হাতেই ছিল আগ্নেয়াস্ত্র। জেলেদের মারধর করে মোবাইল, নৌকা-সহ প্রায় ৩৫ হাজার টাকার মাছ ছিনিয়ে নিয়ে চম্পট দেয় তারা।

ঘটনার পিছনে তৃণমূল নেতা সাইফুদ্দিনেরই হাত রয়েছে বলে মানিকচক থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে জেলেরা। যদিও ঘটনার প্রসঙ্গে কিছুই বলতে চাননি সাইফুদ্দিন।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.