ফের মৌলবাদীদের রোষে নুসরত, দুর্গা সেজে খুনের হুমকি পেলেন অভিনেত্রী সাংসদ

ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করেছেন নুসরত। দুর্গার সাজে সেই ছবিতেই বেজায় চটেছেন সংখ্যালঘু মৌলবাদীরা। হাজারো প্রশ্নে তীব্র সমালোচনায় অবতীর্ণ হয়েছে তারা।

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত বছর হয়েছিল দশমীর দিন। চালতা বাগানে সিঁদুর খেলতে গিয়ে সংখ্যালঘু মৌলবাদীদের রোষের মুখে পড়তে হয়েছিল বসির হাটের তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেত্রী নুসরত জাহানকে। এবার পুজোর প্রায় এক মাস আগেই সেই ঘটনা ঘটল।

ইনস্টাগ্রামে একটি ছবি পোস্ট করেছেন নুসরত। দুর্গার সাজে সেই ছবিতেই বেজায় চটেছেন সংখ্যালঘু মৌলবাদীরা। হাজারো প্রশ্নে তীব্র সমালোচনায় অবতীর্ণ হয়েছে তারা। কী করে.মুসলমান হয়ে নুসরত দুর্গা সাজলেন? কী করে হাতে ত্রিশূল ধরলেন? এমনই সব প্রশ্ন।

এর মধ্যেই দু’এক জন নুসরতকে খুনের হুমকিও দিয়ে ফেলল। কিন্তু সব দেখে ভাবলেশহীন নুসরত। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, কে কী বলল তাতে আমার কিচ্ছু যায় আসে না। আমার কাছে সব ধর্ম সমান। সব উৎসব আনন্দের।

এর আগে স্বামী লিখিল জৈনকে নিয়ে ইসকনের রথযাত্রায় রথের রশিতে টান দিতে দেখা গিয়েছিল অভিনেত্রী সাংসদকে। তখনও একই ধরনের সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছিল তাঁকে। মৌলবাদীদের সমালোচনা থেকে বাদ যায়নি নুসরতের সাংসদ হিসেবে শপথগ্রহণও।

ভোটে জেতার পরই তুরস্কের বোদরুম শহরে ডেস্টিনেশন ওয়েডিং সারতে চলে যান নুসরত। সবার শেষেই প্রায় শপথ নেন তিনি। সংসদে শপথের দিন দেখা গিয়েছিল সিঁথি ভরা সিঁদুর, মেহেন্দি দিয়ে সাজানো হাতে ভর্তি চুড়ি — এই পোশাক-পরিচ্ছদ নিয়েও নুসরতকে কম ঝক্কি পোহাতে হয়নি। কিন্তু প্রতিবারই সমালোচনাকে উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি।

কয়েকদিন আগে অভিনেতা তথা সঞ্চালক মীরকেও একই ধরনের আক্রমণের মুখে পড়তে হয়েছিল। পুজোর মুডে ঢুকে যাচ্ছি বলে মীর একটি ছবি পোস্ট করেন ফেসবুক পোস্টে। মুসলমান হয়ে মীর কেন পুজো নিয়ে মাতামাতি করবেন এই প্রশ্ন তুলে তাঁর পোস্টে হামলে পরে মৌলবাদীরা। জঘন্য আক্রমণের মুখে পড়তে হয় তাঁকে। পাল্টা ফেজ টুপি পরা ছবি দিয়ে ফের একটি পোস্ট করে, কবিতা লিখে জবাব দেন মীর।

You might also like

Comments are closed, but trackbacks and pingbacks are open.