শিক্ষক বদলির প্রতিবাদে পড়ুয়া ও অভিভাবকদের তুমুল বিক্ষোভ চাঁচলের স্কুলে

চাঁচলের প্রত্যন্ত এলাকা কানাইপুর। এখানকার কানাইপুর জুনিয়র বেসিক সরকারি হাইস্কুলে বর্তমানে তিনশোজন ছাত্রছাত্রী রয়েছে। তাদের জন্য রয়েছেন মাত্র দু’জন শিক্ষক। হঠাৎ করেই স্থানীয় বাসিন্দারা জানতে পারেন এই দু’জনের মধ্যে একজন শিক্ষিকা সায়নী ঘোষ বদলি হয়ে গেছেন। এই ঘটনা সামনে আসতেই শোরগোল পড়ে গোটা এলাকা জুড়ে।

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো, মালদহ: শিক্ষিকার বদলি রুখতে বেনজির বিক্ষোভ হল চাঁচলের কানাইপুর জুনিয়র হাইস্কুলে। পুলিশের সামনেই স্কুলের টিআইসি সহ অন্যান্য শিক্ষক এবং অশিক্ষক কর্মীদের ঘরে তালা বন্ধ করে রাখলেন গ্রামবাসী ও ছাত্র-ছাত্রীরা। ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা সৃষ্টি হয় গোটা এলাকায়। খবর পেয়ে এলাকায় পৌঁছয় চাঁচল থানার পুলিশ।

চাঁচলের প্রত্যন্ত এলাকা কানাইপুর। এখানকার কানাইপুর জুনিয়র বেসিক সরকারি হাইস্কুলে বর্তমানে তিনশোজন ছাত্রছাত্রী রয়েছে। তাদের জন্য রয়েছেন মাত্র দু’জন শিক্ষক। হঠাৎ করেই স্থানীয় বাসিন্দারা জানতে পারেন এই দু’জনের মধ্যে একজন শিক্ষিকা সায়নী ঘোষ বদলি হয়ে গেছেন। এই ঘটনা সামনে আসতেই শোরগোল পড়ে গোটা এলাকা জুড়ে। স্থানীয়দের দাবি, দু’জন শিক্ষক দিয়ে স্কুলে কোনওরকমে পঠন-পাঠন চললেও একজন শিক্ষক দিয়ে তা সম্ভব নয়।

শিক্ষক বদলির প্রতিবাদে বুধবার সকাল থেকেই কানাইপুর এলাকা উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। অভিভাবকরা স্কুল ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে। স্কুলের শিক্ষক ও অশিক্ষক কর্মীদের ঘরে তালা বন্ধ করে রাখা হয়। স্থানীয়দের দাবি অবিলম্বে শিক্ষক বদলির নির্দেশ বাতিল না করা হলে আরও বড় আকারে আন্দোলন হবে।

কানাইপুর জুনিয়র হাইস্কুলের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী বিজয়া পারভিন বলে, মাত্র দুই জন শিক্ষক দিয়ে কোনওরকমে আমাদের স্কুল চলে। এর মধ্যে একজনকে বদলি করে দেওয়া হয়েছে। এরপর আমাদের ক্লাস কে নেবে আমরা জানি না।’’

এক ছাত্রীর অভিভাবক মোহাম্মদ আলি জিন্নাহ বলেন, ‘‘মাত্র দুই জন শিক্ষক ও শিক্ষিকা রয়েছেন স্কুলে। তাঁদের দিয়ে কোনওরকমে চলে স্কুল। এলাকার অধিকাংশ পড়ুয়াই নিম্নবিত্ত পরিবারের। এলাকায় আর কোনও স্কুল নেই। তাই এই স্কুলের দিকে তাকিয়ে থাকতে হয় সবাইকে। স্কুলের পঠনপাঠন স্বাভাবিক রাখতে এই শিক্ষিকার বদলি আটকাতে হবে। তাই আমরা আজ বিক্ষোভ দেখাচ্ছি।’’

শিক্ষক শিক্ষিকাদের ঘরে তালা বন্ধ করে বিক্ষোভ দেখানোর খবর শুনেই স্কুলে ছুটে আসে চাঁচল থানার পুলিশ। অবশেষে পুলিশের আশ্বাসে মুক্ত করা হয় শিক্ষক ও অশিক্ষক কর্মীদের।

কানাইপুর জুনিয়র হাইস্কুলের টিআইসি ভিক্টর কুন্ডু বলেন, ‘‘ছাত্রছাত্রী ও অভিভাবকরা স্কুলের শিক্ষক ও অশিক্ষক কর্মীদের ঘরে তালাবন্ধ করে বিক্ষোভ দেখান। স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি রয়েছে এই স্কুলের শিক্ষিকা বদলি রোধ করতে হবে । এ বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।’’

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.