ক্লাস করিনি, ইলেক্ট্রিক ও ল্যাব চার্জ কেন দেব? প্রশ্ন তুলে ছাত্রীদের বিক্ষোভ মহিষাদল কলেজে

দ্য ওয়াল ব্যুরো, পূর্ব মেদিনীপুর: ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে এবার রাস্তায় আটকে বিক্ষোভ দেখালেন মহিষাদল গার্লস কলেজের পড়ুয়ারা। তাঁদের অভিযোগ, করোনা অতিমারিতে কলেজে ক্লাস হয়নি। বাড়িতে বসে অনলাইনে সকলকে ক্লাস করতে হয়েছে। অনলাইনেই দিতে হয়েছে পরীক্ষাও। তবুও ফি’তে কলেজের ইলেক্ট্রিক ও ল্যাব চার্জ দিতে হয়েছে তাঁদের। একই সঙ্গে সময়ে অসময়ে ধার্য্য টাকার থেকে বেশি ফি দিতে হচ্ছে ছাত্রীদের।

বিষয়টি নিয়ে তৃণমূল ছাত্র পরিষদও কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছে। সংগঠনের তমলুক শাখার সহ-সহাপতি সারমিনারা বিবি জানান, ”কলেজ ছাত্রীদের দাবি পুরোপুরি ন্যায্য। অন্যান্য কলেজে অতিরিক্ত ফি ধার্য করেও পরে আলোচনার মাধ্যমে তা মিটিয়ে নিয়েছে। কিন্তু মহিষাদল গার্লস কলেজ কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিয়ে ভাবছেনা। এই কলেজের প্রধান সমস্যা হচ্ছে ছাত্রীদের সুবিধা-অসুবিধা কলেজ কর্তৃপক্ষকে জানানোর জন্য কোনও প্রতিনিধি নেই। বিষয়টি আমরা দলের উচ্চ নেতৃত্বকে জানিয়েছি। তাঁরা যেভাবে এগোবে, আমরা তাঁদের সঙ্গে এগোব। ফি না কমালে তৃণমূল ছাত্র পরিষদ বৃহত্তর আন্দোলনে নামবে।”

এদিকে ছাত্রীদের দাবি, ”তাঁরা অন্যান্য কলেজের থেকেও বেশি ফি দিয়ে থাকেন। তাঁদের অনেকেই খেটে খাওয়া মানুষের সন্তান। বহু অভিভাবকের কাজ চলে গিয়েছে। তবু লকডাউনে তাঁরা কলেজের দাবি মতো ফি দিয়েছেন।” তৃতীয়বর্ষের ছাত্রী বীথি গাঙ্গুলী দাবি, ”বিদ্যাসাগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অতিমারীর জন্য ৩১২ টাকা কলেজ ফি ধার্য্য করা হয়েছিল। সমস্ত কলেজই সেই নিয়ম মানছে। আমরা সারা বছর একটি ক্লাসও কলেজে এসে করিনি। বাড়িতে বসে ডেটা ভরিয়া অনলাইন ক্লাস করেছি। ৫০০ টাকা খরচ করে ডেটা ভরিয়ে পরীক্ষা দিয়েছি। তাহলে আমাদের কাছ থেকে কলেজ কর্তৃপক্ষ ইলেক্ট্রিক ও ল্যাব চার্জ নিচ্ছে কেন? সেগুলো তো আমরা ব্যবহার করিনি। প্রতিটা কলেজ বিষয়গুলি বুঝে কম করে ফি নিলেও আমাদের কলেজ ১৩০০-১৪০০ টাকা ফি নিচ্ছে। এই অন্যায় আমরা মানবনা। ৩১২ টাকার বেশি ফি আমরা দেবনা। ”

প্রায় দেড় ঘণ্টা কলেজের সামনে বিক্ষোভ অবরোধে বসে থাকেন ছাত্রীরা। ”৩১২ টাকার বেশি ফি নয়” বলে প্ল্যাকার হাতে স্লোগান দিতে থাকেন। ফলে সেই রাস্তায় আটকে যায় যানবাহন। পরে পুলিশ এসে ছাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে। বিডিও সঙ্গে কথা বলার আশ্বাস দিলে ছাত্রীরা অবরোধ উঠিয়ে নেন। বিডিও কলেজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনায় বসবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন।

 

 

 

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More