মোদী নিশ্চয় পাক সন্ত্রাসের মোকাবিলা করতে পারবেন, মনে করেন ট্রাম্প

দ্য ওয়াল ব্যুরো : সন্ত্রাসবাদ ও পাকিস্তান। এই দু’টি বিষয় নিয়ে মঙ্গলবার সাংবাদিকদের নির্দিষ্ট প্রশ্নের মুখোমুখি হলেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাঁকে প্রশ্ন করা হয়, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তো স্বীকার করেছেন, তাঁদের দেশে জঙ্গিদের ঘাঁটি আছে। আপনি কি তাদের উদ্দেশে কোনও বার্তা দেবেন? তিনি বলেন, আমি নয়, বার্তা দেবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি কিছুদিন আগে খুব স্পষ্টভাবেই নিজের অবস্থান জানিয়ে দিয়েছেন। আমার মনে হয়, তিনি নিশ্চয় পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে পারবেন। অর্থাৎ ট্রাম্প বুঝিয়ে দিয়েছেন, তিনি মনে করেন, মোদী নিজেই পাকিস্তানের মদতপুষ্ট সন্ত্রাসবাদীদের মোকাবিলা করতে পারবেন।

সোমবার ইমরানের সঙ্গে যৌথ সাংবাদিক বৈঠকের সময় ট্রাম্প ফের বলেন, তিনি কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতা করতে রাজি আছেন। কিন্তু মঙ্গলবার সেকথা বলেননি। তার বদলে বলেছেন, আমি মনে করি ‘টু গ্রেট জেন্টলমেন’ নিজেরাই কিছু একটা করবেন। টু গ্রেট জেন্টেলমেন বলতে তিনি মোদী ও ইমরান খানকে বোঝাতে চেয়েছেন।

ভারত থেকে বহুবার বলা হয়েছে, জঙ্গি হামলা ও আলোচনা একসঙ্গে চলতে পারে না। পাকিস্তান একাধিকবার ভারতের সঙ্গে আলোচনায় বসতে চেয়েছে। কিন্তু ভারত রাজি হয়নি। কারণ পাকিস্তান বিভিন্ন জঙ্গি গোষ্ঠীকে মদত দেওয়া বন্ধ করেনি। ট্রাম্প কিন্তু আলোচনার ওপরে জোর দিয়েছেন। তিনি বলেন, আমি আন্তরিকভাবে বিশ্বাস করি, প্রধানমন্ত্রী মোদী ও প্রধানমন্ত্রী খান নিশ্চয় পরস্পরের সঙ্গে সহমত হবেন।

বিদেশমন্ত্রক থেকে পরে জানানো হয়, মোদী ও ট্রাম্পের মধ্যে ৪০ মিনিট আলোচনা হয়েছে। মোদী বিস্তারিতভাবে বলেছেন, সন্ত্রাসবাদ নিয়ে ভারত কী রকম চ্যালেঞ্জের মুখে পড়েছে। বিদেশ সচিব বিজয় গোখলে বলেন, জম্মু-কাশ্মীরে ৪২ হাজার মানুষ মারা গিয়েছেন। সারা বিশ্বকে ঐক্যবদ্ধভাবে সন্ত্রাসের মোকাবিলা করতে হবে। ট্রাম্পও বলেছেন, ভারত ও পাকিস্তান উভয় দেশেরই সন্ত্রাসবাদীদের মোকাবিলা করা উচিত।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More