বিকেলের মধ্যে গোয়ায় ঢুকবে তাওকতে, কেরল-কর্ণাটকে শুরু ঝড়ের তাণ্ডব

দ্য ওয়াল ব্যুরো: আপাতত গোয়ার দিকে এগোচ্ছে ‘তাওকতে’। আরব সাগরে সৃষ্টি হওয়া ঘূর্ণাবর্ত সাইক্লোনের আকারে দক্ষিণ ও পশ্চিম ভারতের একাধিক উপকূলে আছড়ে পড়বে। এমনটাই জানিয়েছিল মৌসম ভবন। সর্বশেষ পাওয়া খবরে কেরল, কর্ণাটকে ঝোড়ো হাওয়া ও বর্ষণ শুরু হয়েছে।

যদিও রবিবার বিকেলে সাইক্লোন গোয়ায় তাণ্ডব চালাবে বলে আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর। ইতিমধ্যে সেখানে সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস, প্রবল বাতাস ও ভারী বৃষ্টিপাত দেখা দিয়েছে। বাকি দিনজুড়েও এমন আবহাওয়া থাকবে বলে আইএমডি জানিয়েছে। ঝড়ের দাপটে গোয়ার বিদ্যুৎ পরিষেবা ব্যহত হয়েছে৷ অনেক জায়গায় হাওয়ার ঝাপ্টায় ইলেকট্রিক পোল পর্যন্ত মাটি থেকে উপড়ে এসেছে বলে জানান রাজ্যের বিদ্যুৎ মন্ত্রী নীলেশ চাবরাল।

এর আগে মৌসম ভবন জানায়, আগামী ১২ ঘণ্টায় শক্তি বাড়াবে তাওকতে। তার ১২ ঘণ্টা পর প্রবলতর চেহারা ধারণ করে উত্তর-পশ্চিমে গুজরাত উপকূলের দিকে এগোতে থাকবে। ইতিমধ্যে ঝড়ের প্রাবল্য কম থাকলেও কেরল, কর্ণাটক ও মহারাষ্ট্রের কয়েকটি বিচ্ছিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে৷ যোগাযোগ ব্যবস্থা কার্যত বিপর্যস্ত। সংশ্লিষ্ট রাজ্যগুলির বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী উদ্ধারকাজে নেমে পড়েছে।

কেরলে সাইক্লোনের ভালো প্রভাব চোখে পড়েছে। শহরের রাস্তায় যত্রতত্র উপড়ানো গাছ, জমা জল। বহু জায়গায় শুক্রবার থেকে অচল বিদ্যুৎ পরিষেবা। ইতিমধ্যে জলে ডুবে দু’জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। একদিকে ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডব। অন্যদিকে কোভিডের ঊর্ধমুখী আঁচ। দু’দিক সামলে কার্যত ঝুঁকি নিয়েই কয়েকশো বন্যার্ত পরিবারকে সরানোর তোড়জোড় আরম্ভ করেছে রাজ্য প্রশাসন৷

এই পরিস্থিতিতে হাত গুটিয়ে নেই জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীও। ইতিমধ্যে ৫৩ থেকে বাড়িয়ে ১০০টি দল উপদ্রুত এলাকায় মোতায়েত করা হয়েছে৷ তারা কেরল, কর্ণাটক, তামিলনাড়ু ও গোয়ার একাধিক সাইক্লোন-বিধ্বস্ত এলাকায় পৌঁছেছে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More