শীতলকুচির ওই বুথে ওয়েব কাস্টিংই হয়নি! ইচ্ছে করেই বিকল ক্যামেরা? প্রশ্ন তৃণমূলের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: শীতলকুচি বিধানসভার ১২৬ নম্বর বুথে ওয়েব কাস্টিংয়ের ব্যবস্থা থাকলেও তা অফলাইন ছিল বলে জানা গিয়েছে কমিশন সূত্রে। ফলে প্রযুক্তিগত সমস্যার জন্য লাইভ স্ট্রিমিং হয়নি। এও জানা যাচ্ছে, ফুটেজ রেকর্ড হলেও তার ট্রানসমিশন করা যায়নি সোমবার সন্ধে পর্যন্ত। কোচবিহার জেলা প্রশাসন নাকি এখন তা নিয়েই ব্যস্ত। এ নিয়েই এবার পূর্ব পরিকল্পিত ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলল তৃণমূল কংগ্রেস।

শীতলকুচি বিধানসভার ১২৬ নম্বর বুথের বাইরেই কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে চার গ্রামবাসীর মৃত্যু হয়েছিল। চতুর্থ দফার ভোটের দিন এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত পক্ষে বিপক্ষে দুটি বক্তব্য রয়েছে। এক, বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে কমিশনকে রিপোর্ট দিয়েছেন, ওখানকার জনতা কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের ঘিরে ফেলে অস্ত্র ছিনিয়ে নিতে গিয়েছিল। সেই সময়ে জওয়ানরা আত্মরক্ষার্থে গুলি চালায়। একই কথা বলেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহও।

দুই, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, সবটাই হয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে। ওখানে গণহত্যা হয়েছে বলে দাবি দিদির। এবার এই ফুটেজ নিয়ে শুরু হল নতুন চাপানউতর।

কোচবিহার জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যাচ্ছে, তারা মনে করছে, নেটওয়ার্ক বা অন্য কোনও সমস্যার কারণে এটা হতে পারে। আপাতত জেলাশাসক বা জেলা প্রশাসন রেকর্ড করা ফুটেজ খতিয়ে দেখার চেষ্টা করছে বলে জানা গিয়েছে।

নির্বাচন কমিশন এবার নিয়ম করেছে, স্পর্শকাতর বুথের বাইরে ওয়েব কাস্টিংয়ের ব্যবস্থা রাখতে হবে। যাতে বুথের বাইরে অপ্রীতিকর পরিস্থিতি তৈরি হলে সরাসরি তা দেখে ব্যবস্থা নিতে পারে কমিশন। ফলে অস্ত্র ছিনতাইয়ের চেষ্টা বা যা যা বলা হচ্ছে তা ওই ওয়েবকাস্টিংয়ে ধরা পড়ার কথা।

এদিন বিকেলে নির্বাচন কমিশনের দফতরে স্মারকলিপি দিতে যান তৃণমূলের দুই রাজ্য সভার সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন ও সুখেন্দু শেখর রায়। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সুখেন্দুশেখরবাবু বলেন, “আমরা তো আগে থেকেই বলছি, এটা পূর্ব পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র। তাই কি ওখানে একটা বিকল যন্ত্র লাগিয়ে রাখা হয়েছিল? যার তালা খোলা যাচ্ছে না?” এদিন বিমান বসুর নেতৃত্বে বামেদের প্রতিনিধি দলও কমিশনে গিয়ে প্রশ্ন তুলেছে, কীসের ভিত্তিতে বলা হচ্ছে ওখানে কেন্দ্রীয় বাহিনীর থেকে অস্ত্র ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা হয়েছিল? কোনও ফুটেজ কি আছে?

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More