নগেন্দ্র ত্রিপাঠীকে বীরভূমে পাঠানোয় কমিশনের সমালোচনা তৃণমূলের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: নন্দীগ্রামের ভোটের দিনে মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগের সামনে দাঁড়িয়ে চোখে চোখ রেখে তিনি বলেছিলেন, ‘ম্যাডাম খাকি পরে দাগ নেব না।’ সেই আইপিএস অফিসার নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠীকে এবার বীরভূমের পুলিশ সুপারের দায়িত্ব নিতে পাঠিয়েছে ইলেকশন কমিশন। এর পরেই কমিশনের সমালোচনায় মুখর তৃণমূল।

এদিন বিকেলে ডেরেক ও ব্রায়েন টুইট করে লেখেন, নন্দীগ্রামের ভোটের দিনে দায়িত্বে ছিলেন যে পুলিশকর্তা নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠী, তাঁকে বীরভূমে পাঠিয়ে দিল কমিশন। এ ব্যাপারে রাজ্যের সঙ্গে কোনও রকম আলোচনার প্রয়োজনই মনে করেনি তারা।

নন্দীগ্রামে কী হয়েছিল, দেখুন মুখ্যমন্ত্রী ও নগেন্দ্রর সেই কথোপকথনের এক্সক্লুসিভ ভিডিও।

ডেরেক মন্তব্য করেন, ইলেকশন কমিশন অর্থাৎ ইসি-র অর্থ এখন ‘এক্সট্রিমলি কম্প্রোমাইজড’। কেন্দ্র সরকারের সঙ্গে কমিশনের আপসের দিকে ইঙ্গিত করেছেন তিনি। দাবি করেছেন, কমিশন নিরপেক্ষ নয়। তিনি লেখেন, ভোটের ৪৮ ঘণ্টা আগে চার অফিসারকে সরিয়ে দিল ইসি। নির্বাচনী আচরণবিধি মোটেই মানা হচ্ছে না।

এদিন কমিশনের নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, পূর্ব বর্ধমানের পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায়কে সরানো হয়েছে। তাঁর জায়গায় দায়িত্ব নেবেন অজিত কুমার সিং। আসানসোল দুর্গাপুরের পুলিশ কমিশনার সুকেশ জৈনকে অপসারণ করে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে নীতীশ জৈনকে। আর বীরভূমের পুলিশ সুপার মীরাজ খালিদকে সরিয়ে আনা হয়েছে নগেন্দ্রনাথ ত্রিপাঠীকে। সেইসঙ্গে সরানো হয়েছে বীরভূমের বিলৌর এলাকার এসডিপিও অভিষেক রায়কে। তাঁর জায়গায় দায়িত্ব নেবেন নাগারাজ দেবারাকোণ্ডা।

আরও পড়ুন: ‘ম্যাডাম, খাকিতে দাগ নেব না’ বলা অফিসারকে বীরভূমের দায়িত্বে পাঠাল কমিশন, ৩ জেলার পুলিশকর্তা বদল

রাজ্যে ভোট প্রক্রিয়া শুরুর পর থেকে রাজ্য পুলিশের ডিজি, এডিজি আইনশৃঙ্খলা-সহ একাধিক গুরুত্বপূর্ণ পদে রদবদল করেছে কমিশন। এমনকী নিষ্ক্রিয় করে দেওয়া হয়েছে রাজ্যের নিরাপত্তা উপদেষ্টাকেও। এবার সেই তালিকায় যোগ হল আরও তিন পুলিশ কর্তা এবং এসডিপিও-র নামও। 

একইসঙ্গে কমিশনের তরফে জানানো হয়েছে, যে আধিকারিকদের সরানো হয়েছে তারা নির্বাচন সংক্রান্ত কোনও কাজের সঙ্গে আর যুক্ত থাকতে পারবেন না। কমিশন মনে করেছে, ভোট প্রক্রিয়া অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে এই পদক্ষেপ জরুরি।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More