Browsing Tag

sayantan thakur

হাড়ের বাঁশি (একাদশ পর্ব)

সন্ধ্যা হয়ে এসেছে, দিনান্তের আকাশ মলিন আলোয় কোনও বিদেশির আঁকা পটচিত্রের মতোই নিঃসঙ্গ, দূর পশ্চিমে ডানা মেলে একসারি বক কোথায় যেন উড়ে চলেছে। আষাঢ় মাস, তবে আজ মেঘ নাই, পুবালি বাতাস বইছে আপনমনে, কে একটা সিড়িঙ্গে মতো লোক কাঁধে মই নিয়ে দৌড়তে…

হাড়ের বাঁশি (দশম পর্ব)

কাঁসার বাটিতে রাখা কাতলা মাছের একবিঘত বড়ো পেটির দিকে তাকিয়ে ঈশ্বর রাওয়ের ইতস্তত ভাব দেখে ঋষা পাশ থেকে অল্প হেসে জিজ্ঞাসা করল, 'আর ইউ কমফোর্টেবল উইথ দিস?' স্নান শেষে একফেরতা করে সাদা ধুতি পরেছেন ঈশ্বর, গায়ে একখানি সাদা ফুলহাতা জামা,…

হাড়ের বাঁশি (অষ্টম পর্ব)

মাহাতোর ঠিক করে দেওয়া একখানি টোটোয় চড়ে বন্যা যখন ভেন্দা গ্রামে পৌঁছল, তখন বেলা প্রায় দশটা, রৌদ্র আড়মোড়া ভেঙে জেগে উঠেছে চরাচরে, যতদূর চোখ যায় ঝুমকোলতার মতো আলো ফুল ফুটেছে সবখানে। অল্পবয়সী টোটো-চালক গাড়ি থামিয়ে বন্যার দিকে চেয়ে বলল, 'দিদি,…

হাড়ের বাঁশি ( সপ্তম পর্ব )

দিন তখনও শুরু হয়নি, কুয়াশাচ্ছন্ন খড়গপুর স্টেশনে রেলগাড়ির কামরায় উঠে বসল বন্যা। আজ সকালে ঘুম ভাঙতেই মন হঠাৎ স্থির করেছে দুটো দিন কাছেই কোথাও কাটিয়ে আসবে, মাথায় কয়েকটি নাম চকিতে ভেসে উঠল, তার মধ্য থেকে বেলপাহাড়ি পার হয়ে কাঁকড়াঝোড় বলে একটি…

হাড়ের বাঁশি (ষষ্ঠ পর্ব)

ঈশ্বর রাওয়ের সঙ্গে কাজ শেষ করে পৃথ্বীশ যখন নিজের ঘরে এল তখন প্রায় রাত্রি একটা বাজে, আসার আগে দ্বিধাগ্রস্ত স্বরে রাওকে আগামীকাল ছুটির কথা বলতেই মৃদু হেসে তিনি জিজ্ঞাসা করেছিলেন, 'এনিথিং সিরিয়াস রয়?' --নো স্যর নাথিং সিরিয়াস বাট সি ইজ…

হাড়ের বাঁশি (পঞ্চম পর্ব)

'তোমার যেন কবে যাওয়া?', বামদিকে কাচের বন্ধ জানলার ওপারে দিনান্তের মলিন আকাশের দিকে চেয়ে আনমনা স্বরে জিজ্ঞাসা করল বন্যা। কার্তিক মাসেও শিমশিম শব্দে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণের যন্ত্রখানি বেজে চলেছে, কার্তিকের অপরাহ্ণ বড়ো দরিদ্র, দ্বিপ্রহরের শেষ…

হাড়ের বাঁশি (চতুর্থ পর্ব)

নদটির পোড়ো ঘাট,ছোট ছোট বাংলা ইঁট বের করা পৈঠা। নরম শ্যাওলার পরত, খালি পা রাখলে সবুজ রঙ লেগে যায় পায়ের তলায়। মোটা কাছি দিয়ে টুকরো একখান নৌকো বাঁধা থাকে দিনমান,এপার ওপার করে। এদিককার মোতিগঞ্জ থেকে ওদিকের সোনারুন্দি যায় আর আসে, আসে আর…

হাড়ের বাঁশি (চতুর্থ পর্ব)

নদটির পোড়ো ঘাট,ছোট ছোট বাংলা ইঁট বের করা পৈঠা। নরম শ্যাওলার পরত, খালি পা রাখলে সবুজ রঙ লেগে যায় পায়ের তলায়। মোটা কাছি দিয়ে টুকরো একখান নৌকো বাঁধা থাকে দিনমান,এপার ওপার করে। এদিককার মোতিগঞ্জ থেকে ওদিকের সোনারুন্দি যায় আর আসে, আসে আর…

হাড়ের বাঁশি (তৃতীয় পর্ব)

বারোশো সাতাত্তর বঙ্গাব্দের আষাঢ় মাস, একটি গস্তি নৌকো ভাগীরথীর উপর ভেসে পশ্চিমদিকে চলেছে। আষাঢ় অপরাহ্ণ, কিছুক্ষণ পূর্বে বৃষ্টিস্নান শেষে প্রসাধনরতা জগৎ অষ্টাদশী যুবতির মতো উজ্জ্বল, বন্ধনহীন কেশরাজি মেঘরূপ ধারণ করে ছড়িয়ে রয়েছে…

হাড়ের বাঁশি (প্রথম পর্ব)

সায়ন্তন ঠাকুর ১ গহিন অরণ্যের মাঝে লজ্জাবতী দেহাতি কিশোরীর মতো চলে গেছে সুঁড়িপথ-দুপাশে সারি সারি শালাই আর সাজি গাছ। শালাইয়ের বর্ণ ধূসর আর সাজি ঘন কৃষ্ণবর্ণ- কে যেন পরম যত্নে একটি সাজি গাছের পাশে একখানি শালাই গাছ সাজিয়ে রেখেছে, পুনরায় একখানি…

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More