করোনায় মারা গেলেন ‘আজ তকে’র সাংবাদিক রোহিত সারদানা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দেশের সাংবাদিক মহলে ফের করোনার ছায়া। কোভিডে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন বিখ্যাত টেলিভিশন জার্নালিস্ট রোহিত সারদানা। জি নিউজের এডিটর-ইন-চিফ সুধীর চৌধুরি সকালে তাঁর একদা সহকর্মীর মৃত্যুর খবরটি টুইট করেন।

জি নিউজে থাকাকালীন সারদানা ‘তাল ঠোক কে’ নামে একটি ডিবেট শো পরিচালনা করতেন। সেই সময় এই অনুষ্ঠান বেশ জনপ্রিয় হয়েছিল। এরপর ২০১৭ সালে জি নিউজ ছেড়ে আজ তকে যোগ দেন রোহিত। শুরু করেন নয়া শো— ‘দঙ্গল’। আমজনতার রোজকার জীবনের সমস্যা ও রাজনৈতিক ইস্যুকে সেখানে বিতর্কের মোড়কে পেশ করা হত।

গত সপ্তাহে রোহিত করোনায় আক্রান্ত হন। একটি বেসরকারি নার্সিংহোমে তাঁকে ভর্তি করা হয়। ২৪ এপ্রিল নিজে টুইট করে সেকথা জানান। এরপর তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে থাকে। সূত্রের খবর, শুক্রবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় হার্ট অ্যাটাকে মৃত্যু হয় তাঁর।

এদিকে রোহিতের মারা যাওয়ার খবর চাউর হতেই শুধু সাংবাদিক দুনিয়ায় নয়, দেশের রাজনৈতিক মহলেও শোকের পরিবেশ ঘনিয়ে এসেছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইট করেন, ‘রোহিত সারদানা সময়ের আগেই আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন। স্বভাবে উদ্যমী, দেশের অগ্রগতির বিষয়ে উন্মুখ এবং উদার চরিত্রের রোহিতের অভাব অনেকে অনুভব করবেন। তাঁর মৃত্যুতে সাংবাদিক জগতেও শূন্যতার সৃষ্টি হল। রোহিত সারদানার পরিবার, বন্ধু ও গুনগ্রাহীদের সমবেদনা জানাই।’

একইভাবে প্রয়াত সাংবাদিকের স্মৃতিচারণায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ টুইটে লেখেন, ‘রোহিত সারদানার আকস্মিক মৃত্যুতে আমি শোকাহত। দেশ একজন সৎ সাংবাদিককে হারাল। রোহিত সবসময় স্বচ্ছ ও পক্ষপাতহীন রিপোর্টিংয়ের পক্ষে সওয়াল তুলেছেন। ঈশ্বর তাঁর প্রিয়জনদের এই মর্মান্তিক ক্ষতি সহ্য করার শক্তি দিন।’

পাশাপাশি বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা গুলাম নবী আজাদ ‘দৃঢ় ও স্পষ্টবাক সাংবাদিক’ রোহিত সারদানার মৃত্যুতে সমবেদনা জানিয়েছেন। দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন রোহিতের পরিবারের পাশে থাকার আশ্বাস দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, সাংবাদিক জগতে ধাপে ধাপে নিজেকে মেলে ধরেন রোহিত সারদানা। কৃতিত্বের স্বীকৃতি হিসেবে ইতিমধ্যে একাধিক সম্মান পেয়েছেন তিনি। যার মধ্যে অন্যতম ২০১৮ সালের ‘গণেশ বিদ্যার্থী পুরস্কার’।

Leave a comment

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More