জোটবদ্ধ ইউরোপের ১২টি ক্লাব, খেলবে না চ্যাম্পিয়ন্স লিগে, নির্বাসনের কথা ভাবছে ফিফাও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ইউরোপের ফুটবল আঙিনায় অশান্তির কালো ছায়া। উয়েফার মতো সমান্তরাল এক সংস্থা উঠে আসছে, যে কারণে শান্তি বিঘ্নিত হচ্ছে। ওই বিদ্রোহী লিগে নাম লেখাতে চাইছে রিয়াল, বার্সেলোনা, চেলসির মতো নামী ক্লাবগুলিও।
বর্তমানে ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ আসর উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। সামনের বছর থেকে সেই গরিমা আর থাকবে না, আশঙ্কা করা হচ্ছে।
আর সেই আসরে অংশ নিলে বড়সড় নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়বে বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদসহ ইউরোপের বড় বড় ১২টি ক্লাব। শুধু তাই নয়, এ টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়া ফুটবলারদের কাতার বিশ্বকাপ থেকেও নিষিদ্ধ করার হুঁশিয়ারিও দিয়েছে ফিফা।
শীর্ষ লিগগুলির হেভিওয়েট দলগুলিকে নিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ থেকে বেরিয়ে ইউরোপিয়ান সুপার লিগ (ইএসএল) আয়োজনের চিন্তাভাবনা চলছে অনেকদিন ধরেই। তাই আনুষ্ঠানিক বিবৃতির মাধ্যমে এসব ক্লাবের বিরুদ্ধে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করেছে ইউরোপিয়ান ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা উয়েফা এবং বিশ্ব ফুটবলের নিয়ামক সংস্থা ফিফা। তাদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছে ইংল্যান্ড, ইতালি ও স্পেনের ফুটবল ফেডারেশনও।
বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘‘ফিফা এবং আমাদের সকল সহযোগী সংগঠন ঐক্যবদ্ধ থেকে এই বিধ্বংসী প্রকল্প বন্ধ করতে কাজ করব। যে সময়ে সামাজিক সংহতির প্রয়োজন, সেইসময় নিজেদের স্বার্থ দেখতে গিয়ে বিদ্রোহ করছে ওই ক্লাবগুলি।’’
এই ক্লাবগুলির তরফে রবিবার রাতে বৈঠক শেষে জানানো হয়েছে, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তারা আর অংশ নিচ্ছে না। পরিবর্তে সুপার লিগে অংশ নেবে। কারণ এই লিগে আরও বেশি টাকা এবং ক্ষমতা রয়েছে। এই নিয়ে উয়েফা ক্লাবগুলির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি দিয়েছে। ৫০০-৬০০ কোটি ইউরোর মামলা করার প্রস্তুতিও নিচ্ছে বলে উয়েফার তরফে জানানো হয়। তবে উয়েফার হুমকি অগ্রাহ্য করেই নিজেদের সিদ্ধান্তে অটল সুপার লিগে অংশ নিতে চলা ক্লাবগুলি।
এই ১২টি ক্লাবের মধ্যে ৬টি ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব। তিনটি লা লিগা এবং তিনটি ক্লাব সিরি এ-র। এই তালিকায় রয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ, বার্সেলোনা, আটলেটিকো মাদ্রিদ, ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড, চেলসি, টটেনহ্যাম, আর্সেনাল, এসি মিলান, ইন্টার মিলান, জুভেন্তাস, লিভারপুল, ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। এখনও পর্যন্ত জার্মানি এবং ফ্রান্সের কোনও ক্লাব এই টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়ার বিষয়ে কোনও কথা বলেনি। এখনও এই টুর্নামেন্টের দিনক্ষণ কিছু ধার্য করা হয়নি।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More