‘স্রেফ চার দিনের মেয়াদ…’, এবার পুলিশের হেল্পলাইন নম্বরে আদিত্যনাথকে মেরে ফেলার হুমকি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ‘আর মাত্র ৪ দিন আয়ু। তারপরই খতম।’— এই ভাষাতেই প্রাণনাশের হুমকি পেলেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। সূত্রের খবর, কিছুদিন আগে এক অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি উত্তরপ্রদেশ পুলিসের বিশেষ হোয়াটসঅ্যাপ হেল্পলাইন নাম্বার ১১২-তে এই বার্তা দেয়। যা পাওয়া মাত্র নড়েচড়ে বসে রাজ্য প্রশাসন। তড়িঘড়ি সুশান্ত গল্ফ পুলিস স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করা হয়। পাশাপাশি তৈরি হয় বিশেষ তদন্তকারী টিম।

সরকারি তরফে জানা গেছে, ইতিমধ্যে পুলিসের দু’টি দল কাজে নেমেছে। প্রথম বাহিনীর উপর মোবাইল নাম্বার ঘেঁটে অভিযুক্তকে খুঁজে বের করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে দ্বিতীয় টিম তাকে গ্রেফতারের ঘুঁটি সাজাতে শুরু করেছে। পুলিস সূত্রে খবর, গত ২৯ তারিখ সন্ধ্যায় ইমার্জেন্সি হোয়াটসঅ্যাপ নাম্বারে আদিত্যনাথকে খতমের মেসেজ ঢোকে।

যদিও এমন হুমকি এই প্রথম নয়। এর আগে একাধিকবার প্রাণে মেরে ফেলার বার্তা পেয়েছেন যোগী। যার জেরে তাঁকে ২০১৭ সালে জেড প্লাস নিরাপত্তাকবচ দেওয়া হয়। কিন্তু তারপরেও ঝামেলা থামেনি। গত বছর শেষের দিকে যা চূড়ান্ত চেহারা নেয়। সেপ্টেম্বর থেকে ডিসেম্বর— টানা চার মাস ফোন এবং মেসেজে একাধিক হুমকির মুখোমুখি হন তিনি। সেপ্টেম্বরে ১৫ বছরের এক নাবালকের বিরুদ্ধে প্রাণনাশের বার্তা দেওয়ার অভিযোগ ওঠে। মোবাইল নাম্বার ট্রেস করে তাকে আগ্রা থেকে গ্রেফতার করে পুলিস। তারপর অভিযুক্তকে জুভেনাইল হোমে পাঠানো হয়।

ইতিমধ্যে আদিত্যনাথের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও আঁটসাঁট করার সিদ্ধান্ত নেয় প্রশাসন। দায়িত্বপ্রাপ্ত এক আধিকারিক জানান, ‘মুখ্যমন্ত্রীর সুরক্ষা বলয় নিশ্ছিদ্র করা হচ্ছে। এখন থেকে তিনি দেশের যেখানেই যান না কেন, তাঁর সঙ্গে সিআইএসএফ কম্যান্ডো পাঠানো হবে। এমনকী তাঁরা এবার থেকে মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনেও কর্তব্যরত থাকবেন।’

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More