তিন তালাকের মতোই খারাপ, অমানবিক বোরখা, এর থেকে মুক্তি পাবেন মুসলিম মহিলারা, বললেন উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী

দ্য ওয়াল ব্যুরো: তালাক প্রসঙ্গ তুলে মুসলিম মহিলাদের বোরখা পরায় আপত্তি বিজেপি নেতার। আনন্দ স্বরূপ শুক্লা নামে ওই বিজেপি নেতা উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রীও। বোরখা প্রথার সঙ্গে তিন তালাকের তুলনা টেনে দুটোই কুপ্রথা বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। আরও বলেছেন, তিন তালাকের মতোই বোরখা থেকে মুক্তি পাবেন মুসলিম মহিলারা। এমন একটা সময় আসবে যখন ওরা বোরখা পরা থেকে বাঁচবেন, আর তা পরতে হবে না। বিশ্বের অনেক মুসলিম দেশে বোরখা নিষিদ্ধ বলে সওয়াল করেন তিনি। উত্তরপ্রদেশের সংসদীয় বিষয় সংক্রান্ত রাষ্ট্রমন্ত্রী শুক্লা বোরখাকে অমানবিক, খারাপ প্রথা তকমা দেওয়া ছাড়াও প্রগতিশীল চিন্তাভাবনার লোকজন এর নিন্দা করেন, এর ব্যবহারের জন্য চাপ দেন না বলেও জানান।
প্রসঙ্গত, মুসলিম মহিলা (বিবাহ অধিকার রক্ষা) আইন, ২০১৯ এ মুসলিম সমাজে তাত্ক্ষনিক তিন তালাক রীতিকে শাস্তিযোগ্য অপরাধ বলা হয়েছে। এই আইনে মুসলিম পুরুষ স্ত্রীর উদ্দেশে তিন তালাক শব্দ উচ্চারণ করলে তার তিন বছর মেয়াদ পর্যন্ত কারাবাসের সাজা হতে পারে।

বালিয়া জেলা ম্যাজিস্ট্রেটকে চিঠি লিখেও শুক্লা মসজিদে লাউডস্পিকারের শব্দে তাঁর কাজকর্ম করতে অসুবিধা হয় বলে অভিযোগ জানিয়ে কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি করেছেন, যাতে মসজিদের লাউডস্পিকারের শব্দ একটা নির্দিষ্ট সীমায় বেঁধে দেওয়া যায়। জেলাশাসককে লেখা চিঠিতে তিনি তাঁর বাড়ির কাছের মসজিদে লাউডস্পিকারের শব্দে আপত্তি জানিয়ে বলেছেন, যাঁদেরই এমন সমস্যা হবে, তাঁরা ১১২ য় ডায়াল করে পুলিশকে জানান। নিজের বিধানসভা কেন্দ্রের অন্তর্ভুক্ত কাজিপুরা মদিনা মসজিদের প্রসঙ্গ তুলে তিনি বলেন, দিনে ৫ বার নমাজ পাঠ হয় সেখানে। যার ফলে আমার যোগা, ধ্যান, পূজাপাঠ, সরকারি কাজকর্ম করতে সমস্যা হয়। আরও বলেন, মসজিদের আশপাশে বেশ কয়েকটি স্কুলও আছে, সেখানকার পড়ুয়াদেরও পড়াশোনার ব্যাঘাত ঘটে।

You might also like
Comments
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More